নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: একটি গান৷ যার মাধ্যমে ‘কাটমানি’র বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন মমতা ঘনিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী নচিকেতা৷ সেই গান ঘিরেই গায়কের শিবির বদলের জল্পনা৷ সেই গানের জন্যই উড়ে এল ‘পালটিবাজ’ তকমা৷ সৌজন্যে অন্য এক সঙ্গীত শিল্পী৷

‘কাটমানি’র বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ বলেছেন, কাটামানির নিয়ে কোনও জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট অভিযোগ এলে প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে৷ যারা কাটমানি নিয়েচেন তাদের ফেরৎ দেওয়ারও নির্দেশ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার পর থেকেই জেলায় জেলায় তৃণমূল জনপ্রতিনিধিদের ঘিরে শুরু হয়৷গ্রামবাসীদের বিক্ষোভ৷ শহর কলকাতাতেই তৃণমূল কাউন্সিলর তথা রাজ্যসবার সাংসদের বিরুদ্ধে ওঠে অভিযোগ৷

আরও পড়ুন: সন্দেশখালিতে সবকিছু ‘হ্যান্ডেল্ড’ রয়েছে: নুসরত

কাটমানির বিরুদ্ধে গান গেয়ে সরব মুখ্যমন্ত্রী ঘনিষ্ট বলে পরিচিত নচিকেতা৷ শনিবার বিকেলেই ভাইরাল হয় সেই গান৷ কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় সেই গান সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে ধরেন৷ প্রশংসা করেন জনপ্রিয় জীবনমুখী গায়ককে৷ সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় তো সরাসরি একদা ‘পরিবর্তকামী’ এই গায়ককে গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়ার আহ্বান করেন৷ যা তৃণমূল ঘনিষ্ট গায়কের শিবির বদলের জল্পনা উস্কে দেয়৷

দু’জনেই প্রায় সমসাময়িক৷ গানের জগতে নচিকেতা ও শিলাজিৎ দুই মেরুর৷ একে অপরের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন৷ তারই পুনরাবৃত্তি গায়ক শিলাজিতের ফেসবুক পোস্টে৷ দেশবাসীকে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি৷ লিখেছেন, ‘চোখ কান খোলা রেখো ভাই সব।আবার পাল্টি খাচ্ছে ।রাজনৈতিক সুবিধে নিয়ে চলতে থাকা মানুষ গুলো।আবার বদলে ফেলবে নিজেদের স্টান্স।’

শিলাজিতের মতে এই ‘বদলে’ খুব একটা কিছু আসে যায় না৷ যদিও বলেছেন, বিশিষ্টদের এই বদলে সাধারণ মানুষই বোকা হবে৷ কিন্তু, প্রতিভাবানরা শিবির বদলাবেই৷ তিনি লেখেছেন, ‘মূর্খ জনগন মুরগী হবে ।ডিম পাড়বে। Cut money honey খাওয়া প্রতিভাবান রা এবার অন্য মঞ্চে দাঁড়িয়ে পরবে।ম্যাজিক দেখতে থাকো বাজার এর দালাল সালা দের চিনতে পারলে চেনো।’

এতকিছু দেখে অবশ্য তিনি চুপ থাকবেন না বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এই বিদ্রোহী গায়ক৷ তাঁর লেখায়, ‘আমি শুধু বলতে থাকবো যেমন বলেছিলাম।”ঘুম peyeche বাড়ী যা।”যেমন বলেছিলাম “নাগরদোলা দিচ্ছে পাক পাকের তালে ঘুরতে থাক।” ঘুরতে থাক।’

আরও পড়ুন: বিজেপির বর্তমান অবস্থা দেখলে আত্মহত্যা করতেন শ্যামাপ্রসাদ: শোভনদেব

নিজের ফেসবুক পোস্টে সব শেষে শিলাজিৎ লিখেছেন, ‘যারা যারা কাট মানির বিরুদ্ধে ।আমি তাদের পক্ষে। এই পোস্ট এর বিরুদ্ধে যারা, তাদের আমি কাট মানির পক্ষে ধরে নিতে বাধ্য হবো।অনাবশ্যক ভাবে কেউ এই পোস্ট এর সঙ্গে যদি কাওকে জড়াতে চায় সেটা তাদের দায়।’

কারও নাম নেননি শিলাজিৎ৷ কিন্তু, পোস্টের অন্তর্নিহিত মানেতেই স্পষ্ট তাঁর নিশানায় মমতা ঘনিষ্ট নচিকেতাই৷ বৃদ্ধাশ্রম গানের স্রষ্টা আবারও রাজনৈতিক শিবির বদলের প্রক্ষাপট রচনা করতে শুরু করেছেন গানে গানে৷ সেটাই বোধাতে চেয়েছেন ‘তোদের ধুম পেয়েছে বাড়ি যা গানে’র জন্মদাতা৷

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প