সিডনি: ১৯৯২ বিশ্বকাপের জার্সি ফিরল ভারতীয় ক্রিকেট দলের৷ সামনে এল ভারতীয় দলের নতুন জার্সি। নতুন জার্সিতে অস্ট্রেলিয়ায় সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলবেন বিরাট-ধাওয়ানরা৷ মঙ্গলবার শিখর ধাওয়ান টিম ইন্ডিয়ার নতুন জার্সি পরে টুইটারে ছবি পোস্ট করেন৷ নতুন স্পনসরের লোগো নিয়ে এই প্রথম কোনও ভারতীয় ক্রিকেটারকে দেখা গেল এই জার্সিতে।

নতুন জার্সি পরা ছবি টুইট করে ধাওয়ান লেখেন, ‘নতুন জার্সি। নতুন প্রেরণা। আমরা তৈরি’। শুক্রবার থেকে শুরু হতে চলা ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজের উত্তেজনার পারদ বাড়তে শুরু করে দিয়েছে। তার মধ্যেই নতুন জার্সি পরে অস্ট্রেলিয়াকে আগাম সতর্কতা দিয়ে রাখলেন ‘গব্বর’।

অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের মাটিতে হয়েছিল ১৯৯২ বিশ্বকাপ৷ ২৮ বছর পর সেই অস্ট্রেলিয়া মাটিতেই ফিরল টিম ইন্ডিয়ার জার্সি৷ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এই জার্সি পরেই ওয়ান ডে এবং টি-২০ সিরিজে মাঠে নামবেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা৷

শুক্রবার তিন ম্যাচের সিরিজের প্রথম ওয়ান ডে৷ আগেই জানা গিয়েছিল ১৯৯২ বিশ্বরাপে জার্সির আদলে তৈরি হতে চলেছে টিম ইন্ডিয়ার নতুন জার্সি। আর সেটাই দেখা গেল৷ স্পনসরের লোগো দেওয়া এই নতুন জার্সিতে ফিরল ’৯২-এর স্মৃতি। সেই গাঢ় নীল রঙের জার্সি, সঙ্গে কাঁধে চারটি রঙের লম্বা দাগ। এই রকম জার্সি পরেই কপিল দেব, সচিন তেন্ডুলকর, রবি শাস্ত্রীরা মাঠে নেমেছিল৷ বিশ্বকাপের মঞ্চে সেবারই প্রথমবার রঙিন পোশাক পরে নেমেছিল প্রতিটি দল।

চলতি মাসের শুরুতে বিসিসিআই-এর তরফে জানানো হয়েছিল টিম ইন্ডিয়ার নতুন কিট স্পনসরের নাম৷ নাইকের পরিবর্তে টিম ইন্ডিয়ার নতুন কিট স্পনসর হয়েছে এমপিএল স্পোর্টস৷ বিরাটদের নতুন জার্সিতে রয়েছেন নতুন কিট স্পনসরের নামও৷ এমপিএল স্পোর্টসের সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি হয়েছে বিসিসিআই-এর৷ ফলে চলতি বছর নভেম্বর থেকে ২০২৩ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত ভারতীয় ক্রিকেট দলের কিট স্পনসর থাকবে এমপিএল৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।