সাউদাম্পটন: শেষ রক্ষা হয়নি৷ চেষ্টা করা হয়েছিল বিশ্রাম দিয়ে লিগের শেষ ম্যাচগুলিতে মাঠে নামানোর৷ তবে বিশ্বকাপের মাঝে চোট সেরে ওঠার সম্ভাবনা না থাকায় অপ্রিয় সিদ্ধান্তটা নিতেই হয় ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টকে৷ বিশ্বকাপের মাঝেই শিখর ধাওয়ানকে চোটের জন্য ছেড়ে দিতে হয় স্কোয়াড থেকে৷ পরিবর্ত হিসাবে ঋষভ পন্ত তৈরিই ছিলেন৷ আইসিসি’র ইভেন্ট টেকনিক্যাল কমিটির অনুমোদন মিলতেই তিনি এখন সরকিরভাবে টিম ইন্ডিয়ার বিশ্বকাপ দলের সদস্য৷

নিজে ফর্মে ছিলেন৷ দল রয়েছে জয়ের মধ্যে৷ টুর্নামেন্টের অন্যতম ফেভারিত হিসাবে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করা টিম ইন্ডিয়া বিশ্বজয়ের দিকে যথাযথ অগ্রসর হচ্ছে৷ এই অবস্থায় চোটের জন্য বাধ্য হয়ে দল ছাড়তে হচ্ছে শিখর ধাওয়ানকে৷ বাস্তববাদী গব্বর বিষয়টিকে খেলোয়াড়সুলভ মানসিকতায় গ্রহণ করছেন৷ সেকারণেই অফিসিয়ালি স্কোয়াড ছাড়ার আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে আবেগঘন বার্তা দিলেন ধাওয়ান৷ আবেদন করলেন, বিশ্বজয়ের পথে টিম ইন্ডিয়াকে আকুণ্ঠ সমর্থন করার৷

নিজের টুইটার পেজে ধাওয়ান একটি ভিডিও পোস্ট করেন৷ যেখানে অনুরাগীদের সম্বোধন করে তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘আপনাদের সকলের এমন সমর্থন ও প্রার্থণায় আপ্লুত হয়েই এই ভিডিওটি পোস্ট করছি৷ দূর্ভাগ্যজন বিষয় যে, আমার আমার বুড়ো আঙুলের চোট যথা সময়ে সেরে ওঠা সম্ভব নয়৷ আমি ভীষণভাবে বিশ্বকাপে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করতে চেয়েছিলাম৷ এখন আমাকে ফিরে যেতে হবে এবং সুস্থ হয়ে পরবর্তী পর্যায়ের জন্য প্রস্তুত হতে হবে৷ ছেলেরা বিশ্বকাপে দারুণ খেলছে৷ আমি নিশ্চিত ওরা আরও ভালো খেলবে এবং বিশ্বকাপ জিতবে৷ আমাদের জন্য প্রার্থণা করুণ৷ সমর্থন করুণ আমাদের৷ আপনাদের সমর্থন ও প্রার্থণা আমাদের জন্য আত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও প্রয়োজনীয়৷ সবাইকে ধন্যবাদ৷ ভালো থাকবেন৷’

ভিডিওর সঙ্গে একটি বার্তাও পোস্ট করেন ধাওয়ান৷ যেখানে তিনি লেখেন, ‘এটা ঘোষণা করতে নিজেকে আবেগতাড়িত মনে হচ্ছে যে, আমি আর বিশ্বকাপ অভিযানের শরিক থাকব না৷ দূর্ভাগ্যের বিষয় হল আমার বুড়ো আঙুল ঠিক সময়ে সেরে উঠবে না৷ তবে খেলা চলতে থাকবে৷ আমার সতীর্থ, ক্রিকেট অনুরাগী ও গোটা দেশের কাছ থেকে যে সমর্থন পেয়েছি তার জন্য আমি কৃতার্থ৷ জয় হিন্দ৷’

কেনিংটন ওভালে সেঞ্চুরি করার পথে বাঁ-হাতের বুড়ো আঙুলে চোট পেয়েছিলেন ধাওয়ান৷ চিকিৎসকরা তাঁকে অন্তত ২১ দিন বিশ্রাম দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন৷ আঙুলে প্লাস্টারও হয়েছিল৷ কিন্তু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারা যায় জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত ধাওয়ানের মাঠে ফেরার সম্ভাবনা নেই৷ সুতরাং বাঁ-হাতি ওপেনারকে দেশে ফেরানোর সিদ্ধান্ত নেয় বোর্ড৷