কলকাতা: বাংলার সিনিয়র মহিলা ক্রিকেট দলের হেড কোচ নিযুক্ত হলেন প্রাক্তন পেসার শিবশঙ্কর পাল৷ একই সঙ্গে মেয়েদের জুনিয়র দলের পেসারদের পরিণত করে তোলার দায়িত্বও পালণ করবেন তিনি৷

৩৭ বছর বয়সি শিবশঙ্করের ঘরোয়া ক্রিকেট খেলার বিপুল অভিজ্ঞতা রয়েছে৷ বাংলা ও ভারতীয় বোর্ড সভাপতি একাদশের হয়ে মোট ৬১টি ফার্স্ট ক্লাস, ৬১টি লিস্ট-এ ও ৮টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন তিনি৷ প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেটে ২২০টি, লিস্ট-এ ক্রিকেটে ৮৬টি ও টি-২০ ক্রিকেটে ১২টি উইকেট নিয়েছেন তিনি৷ ২০১৬ সালে খেলা ছাড়ার পর নিজের অ্যাকাডেমিতে ক্রিকেটার গড়ার কাজ করার পাশাপাশি মিজোরামের অনূর্ধ্ব-২৩ (পুরুষ) দলকে কোচিং করিয়েছেন শিবশঙ্কর৷

আরও পড়ুন: কোহলির উপর্যুপরি দ্বিতীয় শতরানে ওয়ান ডে সিরিজ জয় ভারতের

নতুন দায়িত্ব নেওয়ার পর শিবশঙ্কর বলেন, ‘এটা আমার কাছে ঘরে ফেরার মতো৷ নতুন এই দায়িত্ব পেয়ে সম্মানিত বোধ করছি৷ যখন সিএবি সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও যুগ্মসচিব অভিষেক ডালমিয়া আমাকে প্রস্তাব দেয় মেয়েদের দলের দায়িত্ব নেওয়ার জন্য, চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে দু’বার ভাবিনি৷’

শিবশঙ্কর আরও বলেন, ‘বাংলা দলে অনেক প্রতিভাবান ক্রিকেটার রয়েছে৷ দলে ঝুলনের মতো ক্রিকেটার থাকায় আমার কাজ অনেক সহজ হবে৷ সমস্ত কোচিং স্টাফদের সহযোগিতা নিয়ে আমি নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব৷ সব বিভাগেই আমরা কঠোর পরিশ্রম করব৷ সাম্প্রতিক সময়ে বাংলার মহিলা দল দারুণ পারফরম্যান্স করেছে৷ সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখাই হবে আমাদের লক্ষ্য৷’

আরও পড়ুন: সচিনকে ছুঁয়ে বিশ্বরেকর্ড কোহলির

শিবশঙ্করের হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়ার পর সিএবি’র যুগ্মসচিব অভিষেক ডালমিয়া বলেন, ‘আমরা বাংলা ক্রিকেটের সার্বিক উন্নয়ন চাই৷ ছেলেদের ক্রিকেটের মতোই মেয়েদের ক্রিকেটেও এমন কোনও দিক নেই, যেদিকে আমাদের নজর নেই৷ মহিলা ক্রিকেটারদের জন্যও আমরা সর্বোত্তম পরিকাঠামো সব রকম সুযোগ সুবিধার বন্দোবস্ত করেছি৷ শিবশঙ্করকে কোচ নিযুক্ত করাটা আমাদের সেই লক্ষ্যে একটা যথাযথ পদক্ষেপ৷ আমরা নিশ্চিত যে, সর্বোচ্চ পর্যায়ে ক্রিকেট খেলার বিপুল অভিজ্ঞতা থেকে মহিলা দলকে সঠিক দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে ও৷’