ঢাকা: রায়া নামে কিশোরী বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (অটিস্টিটক)। তার ইচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলবে। নিজের মতো করে সেটাই বুঝিয়ে বলেছিল মা কে। তারপর যা হলো, তাতে চমকে গিয়েছে বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক মহল। সামাজিক মাধ্যমে ঝড় তুলেছে একটি ছবি।

অটিস্টিক কিশোরী রায়ার ইচ্ছে পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ভিডিও কলে রায়ার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে রায়ার সঙ্গে কথা বলেন।

এই ছবি ভাইরাল হয়েছে। আওয়ামী লীগের শাখা সংগঠন যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল তাঁঁর ফেসবুকেে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ওই কিশোরীর কথা বলার বিষয়টি জানিয়েছেন।

ফেসবুক পোস্টে অপু উকিল লিখেছেন, ‘এক কিশোরী প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার আগ্রহ প্রকাশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিল। মানবিক প্রধানমন্ত্রী সে কথা জানতে পেরে পরম স্নেহে কিশোরীটির সঙ্গে ভিডিও কল করে শত ব্যস্ততার মধ্যেও কথা বলেছেন।’

রায়া অটিস্টিক। তার জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণ দরকার হয়। রায়ার শিক্ষিকা প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। রায়ার মা আরায়া হাফিজ তাঁর ফেসবুক পেজে অনুভূতি প্রকাশ করেছেন। ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন বলেন, ‘আমরা গতকাল একটি ভিডিও আপলোড করেছিলাম। যেখানে রায়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ করেছিল তার সঙ্গে তিনি যেন কথা বলেন। পরম করুনাময় অসীম আল্লাহর দয়ায় আমরা আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেছি। প্রধানমন্ত্রী একটু আগে ফোন করেছিলেন। তিনি অনেকক্ষণ কথা বলেছেন। লকডাউনের সিচুয়েশন আরেকটু নরমাল হয়ে গেলে রায়াকে প্রধানমন্ত্রী তায বাসায় গিয়ে দেখা করতে বলেছেন।’

রায়া বলেছে, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলেছি আই লাভ ইউ। আমি তার সঙ্গে অনেক কথা বলেছি। আমি তাকে বলেছি লকডাউন শেষ হলে তোমার বাসায় গিয়ে গল্প করবো, দেখা করবো। আই লাভ ইউ বলবো।’

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।