ঢাকা: বিশ্বব্যাপী আবেদন করেছিল চিন সরকার। কমে আসছে মুখ ঢেকে রাখার মাস্ক। নতুন করে তৈরিতে সময় লাগবে। তড়িঘড়ি বিপুল সংখক মাস্ক পাঠিয়ে নজির গড়েছে নেপাল। এবার বাংলাদেশ সরকার করল সাহায্য।

বাংলাদেশ বিদেশ মন্ত্রক (পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়) জানাচ্ছে, করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত চিনের জন্য মাস্ক, গ্লাভস, গাউন, ক্যাপ ও স্যানিটাইজার সহ স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রবিবার ঢাকায় বিদেশমন্ত্রী এ.কে আব্দুল মোমেন সাংবাদিক সম্নেলনে চিনের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি উল্লেখ করে বলেন, সহমর্মিতামূলক সহায়তা হিসেবে দেশটির জন্য এসব সামগ্রী পাঠিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

ভাইরাস সংক্রমণে চিনে লাগাতার মৃত্যু হচ্ছে। রবিবার পর্যন্ত ১৬০০ জনের বেশি মারা গিয়েছেন। ৬৫ হাজারের বেশি সংক্রামিত।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে মৃত্যুর ঘটনায় শোক ও সমবেদনা জানিয়ে চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে চিঠি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী হাসি না। সেই চিঠি ঢাকায় নিযুক্ত চিনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিংয়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন জানান, প্রধানমন্ত্রী চিঠিতে চিন সরকারকে সব রকম সাহায্য করার কথা জানিয়েছেন।

করোনাভাইরাস কবলিত চিনের হুবেই প্রদেশ থেকে ফিরে আসা ৩১৩ জন বাংলাদেশি সংক্রামিত নন বলেই জানানো হয়েছে। বাংলাদেশ বিদেশমন্ত্রক জানাচ্ছে, সিঙ্গাপুর ছাড়া আর কোথাও বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি।

জানা গিয়েছে, করোনাভাইরাস পরীক্ষায় বাংলাদেশকে ৫০০ কিট দিচ্ছে চিন সরকার। ঢাকায় চিনা রাষ্ট্রদূত লি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন মহানুভবতার সাধুবাদ জানাই আমরা। করোনাভাইরাস ইস্যুতে চিনকে বাংলাদেশ যে সহযোগিতা করে যাচ্ছে তা প্রশংসার দাবি রাখে।