নয়াদিল্লি: বছরদু’য়েক আগেকার কথা। তাঁর প্রতিশ্রুতিমান ছাত্রীকে দেখে নিতে রোহতকের শ্রী রাম নারায়ণ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে হরিয়ানার রঞ্জি দলের ফাস্ট বোলার আশিস হুডার বিরুদ্ধে শেফালিকে নামিয়ে দিয়েছিলেন অশ্বিনী কুমার। প্রথমটায় শেফালির কথা ভেবে স্লো-বল করেছিলেন হুডা। স্টেপ আউট করে এসে মাথার উপর দিয়ে ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন ভারতীয় মহিলা দলের ওপেনিংয়ে নয়া সেনসেশন।

কিন্তু হুডার পরের বলটির গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ১৩০ কিমির আশেপাশে। তাতেও নিস্তার পাননি হুডা। তখনই তিনি বুঝে গিয়েছিলেন, ‘এই মেয়ে টি-২০ বিশ্বকাপে একদিন ভালো কিছু করে দেখাবে।’ বৃহস্পতিবার মেলবোর্নে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে টানা তৃতীয় ম্যাচে জয় তুলে নিয়েছে হরমনপ্রীত কর নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দল। একইদিনে চলতি টুর্নামেন্টে তাঁর দ্বিতীয় ম্যান অফ দ্য ম্যাচ পুরস্কারটি ছিনিয়ে নিয়েছেন শেফালি। তাঁর ৩৪ বলে ৪৬ রানের ইনিংসে টানা তৃতীয় জয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে ভারতীয় মহিলা দল।

দলের জয়ের পাশাপাশি তাঁর ছক্কা হাঁকানোর সহজাত ক্ষমতার কারণে কমেন্ট্রি বক্স থেকে প্রাক্তনীদের নানা প্রশংসা কুড়িয়ে নিলেন শেফালি। ১৬ বছরের শেফালিতে মুগ্ধ নাসের হুসেন বলেন, ‘মেয়েটা সত্যিই অনবদ্য ক্রিকেট খেলে।’ ভারতীয় মহিলা দলের প্রাক্তন অধিনায়িকা ডায়ানা এডুলজির কথায়, ‘শেফালির হাত ধরে মহিলা ক্রিকেটে একদিন প্রচুর পরিমাণে দর্শক সমাগম ঘটবে।’ এখানেই থেমে না থেকে টিন-এজ শেফালিকে বীরেন্দ্র সেহওয়াগের সঙ্গে তুলনা করে এডুলজি বলেন, ‘শেফালির আগ্রাসী মনোভাব মহিলা ক্রিকেটকে তরতাজা করেছে।’

বেশ দীর্ঘ একটা সময় ধরে মহিলাদের ক্রিকেট সেই অর্থে বিগ-হিটার পায়নি। চলতি বিশ্বকাপের তিন ম্যাচে ৮টি ছয় হাঁকিয়ে অপেক্ষার অবসান ঘটাতে চলেছেন শেফালি। কেরিয়ারে মাত্র ১৭টি টি-২০ ম্যাচের পর এই মুহূর্তে তাঁর ১৪৮ স্ট্রাইক রেট মহিলা ক্রিকেটে সর্বোচ্চ। সবমিলিয়ে টিন-এজ সেনসেশন শেফালির ব্যাটিং জাদুতে বুঁদ ক্রিকেটদুনিয়া।