স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে সরানো হচ্ছে শশী পাঁজাকে৷ সূত্রের খবর, সেই পদে ফিরিয়ে আনা হবে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যকে৷ শশী পাঁজার হাতে থাকছে শুধুমাত্র সমাজকল্যান ও নারী-শিশুকল্যান দফতর৷

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্ত্রীসভায় প্রথম থেকেই স্বাস্থ প্রতিমন্ত্রীর পদে ছিলেন চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য৷ কিন্তু বিধানসভা নির্বাচনে হেরে যাওয়ায় মন্ত্রীত্ব খোয়ান তিনি৷চন্দ্রিমার এই হেরে যাওয়া মেনে নিতেন পারেনি মুখ্যমন্ত্রী৷ মন্ত্রীসভায় ফিরিয়ে আনতে দক্ষিণ কাঁথি বিধানসভা থেকে উপনির্বাচনে চন্দ্রিমাকে জিতিয়ে আনেন মমতা৷ নির্বাচনের ফল প্রকাশের দিনই বহরমপুরে এক সভায় মমতা বলেন, ‘চন্দ্রিমা খুব ভাল কাজ করে। ওকে মিস করছিলাম। ও আমাকে খুব হেল্প করত৷ বৈশাখেই ওকে মন্ত্রিসভায় ফেরাব। আরও কয়েকজনকে আনা হবে। পয়লা বৈশাখের পর সিদ্ধান্ত নিয়ে জানিয়ে দেব।’

- Advertisement -

মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণার পরই স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর পদে চন্দ্রিমার ফেরা নিয়ে জল্পনা জোরাল হয়৷কিন্তু বর্তমানে ওই পদে রয়েছেন প্রয়াত অজিত পাঁজার পুত্রবধূ শশী পাঁজা৷সূত্রের খবর, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শশী পাঁজার কাজ পছন্দ হচ্ছে না মুখ্যমন্ত্রীর৷
উল্লেখ্য, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী হওয়ার পর আগ বাড়িয়ে হোম পরিদর্শনে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর রোষের মুখে পড়েছিলেন শশী পাঁজা৷এমনকি শিশু পাচার নিয়ে রাজ্যের দায় এড়িয়ে প্রবল বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন তিনি৷যা ভালভাবে নেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷একাধিক অসন্তোষের কারণে তাই স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে শশীকে সরাতে চান মমতা৷

এদিকে, বিভিন্ন বিষয়ে স্বাস্থ্য দফতরের সাফল্যের পিছনে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের হাত ছিল বলেও মত স্বাস্থ্য দফতরে একাংশের মত। রাজ্যের মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালগুলিতে ন্যয্যমূল্যের ওষুধের দোকান থেকে শুরু করে ট্রমাকেয়ার সেন্টার, মাদার অন্ড চাইল্ড হাব, হাসপাতালগুলিতে ওয়াটার এটিএম সহ একাধিক উন্নয়নমূলক কাজ তাঁর আমলেই হয়েছে।তাই মুখ্যমন্ত্রীও তাঁকে পুরনো পদ ফিরিয়ে দিয়ে তাঁকে পুরস্কৃত করতে চাইছেন৷