কলকাতা- চলে গেলেন প্রখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনার শর্বরী দত্ত। বৃহস্পতিবার মৃত্যু হয় তাঁর। তাঁর মৃত্যুর খবরে ইতিমধ্যেই টলিউড সহ গোটা বিনোদন জগতে ছড়িয়ে পড়েছে শোকের ছায়া। তবে তাঁর কাজ শুধু বাংলাতেই আবদ্ধ ছিল না। বলিউডের এক রাজকীয় বিয়ের জন্য পোশাক ডিজাইন করেছিলেন শর্বরী দত্ত।

পড়ুন আরও-  প্রয়াত প্রখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনার শর্বরী দত্ত

পুরুষদের ট্রাডিশনাল পোশাক ডিজাইনিংয়ের জন্য বিখ্যাত শর্বরী। ২০০৭ সালে অভিষেক বচ্চন এবং ঐশ্বর্য রাই এর বিয়ে হয়। বিয়েতে অভিষেক বচ্চনের পোশাক ডিজাইন করেছিলেন কলকাতার শর্বরী দত্ত।

ঐশ্বর্য রাইয়ের মা বৃন্দা রাইয়ের ইচ্ছে ছিল, শর্বরী দত্তের ডিজাইন করা পোশাক বিয়েতে পরুক জামাই। সেই সময়ে ভারতে শর্বরী একমাত্র মহিলা ডিজাইনের ছিলেন যিনি শুধু মাত্র পুরুষের ট্রাডিশনাল পোশাক ডিজাইন করেন।

২০০৭ সালে এক সংবাদমাধ্যমকে শর্বরী বলেছিলেন, “বচ্চন পরিবারের আমার ডিজাইন করা পোশাক পরা উচিত, বৃন্দা রাই এমন বলার পরে আমি ওদেরকে ৩০ পিস পুরুষদের ট্রাডিশনাল পোশাক পাঠিয়েছি। আমার আশা আছে যে এই কালেকশন থেকে অমিতাভ বচ্চন নিজেও একটি পোশাক পরবেন।”

অভিষেকের শারীরিক উচ্চতা কথা মাথায় রেখে পোশাক ডিজাইন করেছিলেন শর্বরী দত্ত। মেরুন, অফ হোয়াইট, ইলেকট্রিক ব্লু এবং রাস্ট -এই চারটি রং এর বিভিন্ন কাটের পোশাক পাঠিয়ে ছিলেন তিনি।

এছাড়াও শর্বরী দপ্তর ডিজাইন করা পোশাক পরেছেন জগজিৎ সিং, বিজয় মাল্য, লিয়েন্ডার পেজ, কপিল দেব, বাইচুং ভুটিয়া সহ আরো অনেকে।

ফ্যাশন ডিজাইনিং ছাড়াও আরো একটি পরিচয় রয়েছে ফ্যাশন ডিজাইনারের। তিনি বাংলার কবি অজিত দত্তের মেয়ে। ছোটবেলা থেকেই কবিতা, গান, নাচ,‌ শিল্প-সংস্কৃতি চর্চার মধ্যে বড় হয়েছিলেন শর্বরী দত্ত। তিনি স্নাতক পড়েছিলেন প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন তিনি।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।