সিডনি: ক্রিকেটারদের সঙ্গে প্রশাসকদের দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে চলে আসার নজির ক্রিকেট বিশ্বে নেহাত কম নেই। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিকেটারদের প্রশাসকের চেয়ারে বসার যে রীতিটা শুরু হয়েছে, তা এই দ্বন্দ্বের স্থায়ী সমাধান করতে পারে বলে বিশ্বাস আন্তর্জাতিক ক্রিকেটমহলের।

কুমার সাঙ্গাকারার এমসিসি সভাপতি নিযুক্ত হওয়া, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিসিসিআই সভাপতি পদে আসীন হওয়া সেই নতুন যুগেরই সূচনা লগ্ন বলে বিবেচিত হচ্ছে।সেই তালিকায় এবার যোগ হল শেন ওয়াটসনের নাম। প্রাক্তন অজি অল-রাউন্ডার নতুন ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন মঙ্গলবার।

যদিও ওয়াটসন সরাসরি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের অন্দরমহলে ঢুকে পড়েননি। বরং তিনি অত্যন্ত প্রভাবশালী অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান নিযুক্ত হলেন। সিডনিতে এসিএ’র বার্ষিক সাধারণ সভায় সংস্থার নতুন সভাপতি নিযুক্ত হন ওয়াটসন।

১০ সদস্যের বোর্ডে ওয়াটসন ছাড়াও তিন নবনিযুক্ত ডিরেক্টর হলেন প্যাট কামিন্স, ক্রিশ্চেন বিমস ও প্রাক্তন অজি তারকা লিজা স্থালেকর। এছাড়া বোর্ডের বাকি সদস্যরা হলেন গ্রেগ ডায়ার, অ্যারন ফিঞ্চ, অ্যালিসা হিলি, মইসেস হেনরিক্স, নেইল ম্যাক্সওয়েল ও জানেত টর্নি।

নতুন দায়িত্ব নেওয়ার পর ওয়াটসন জানান, ‘নতুন দিশায় এগিয়ে চলা এসিএ’র সভাপতি নিযুক্ত হয়ে অত্যন্ত সম্মানিত বোধ করছি। আমার আগে যাঁরা দায়িত্বে ছিলেন, তাদের শূন্যস্থান যথাযথ পূরণ করতে হবে আমাকে এবং আমি অত্যন্ত উত্তেজিত যে খেলাটা আমাকে জীবনে সবকিছু এনে দিয়েছে, সেই ক্রিকেটকে নতুন করে কিছু ফিরিয়ে দেবার সুযোগ পেয়ে।’

ক’দিন আগেই অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন মহিলা ক্রিকেটার মেলানি জোনসকে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তাদের ডিরেক্টর নিযুক্ত করেছে। জোনস এ-বছরই অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম নাগরিক সম্মান মেডেল অফ দ্য অর্ডার অফ অস্ট্রেলিয়ায় ভূষিত হয়েছেন।