ওল্ড ট্র্যাফোর্ড: গতকাল অর্ধেকের বেশি সময়টা ছিল বৃষ্টির দখলে। ইংল্যান্ডের আবহাওয়ায় এমন একটি পরিবেশে সদ্য ৫০০ ছোঁয়া ব্রড, ৬০০-র ঘরে এক পা বাড়িয়ে রাখা জেমস অ্যান্ডারসনদের সামনে উপমহাদেশের কোনও ব্যাটসম্যানের ‘ফ্ল-লেস’ ব্যাটিং যে কতোটা নয়নাভিরাম, সেটা ক্রিকেট অনুরাগীরাই জানেন। বৃহস্পতিবার ম্যাঞ্চেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে যে ইনিংসটা খেললেন শান মাসুদ, তাতে মনে হচ্ছে তিনি লম্বা রেসের ঘোড়া।

১৯৯৬ সালে শেষবার পাক ওপেনার হিসেবে বিলেতের মাটিতে শতরান এসেছিল সঈদ আনোয়ারের ব্যাট থেকে। প্রায় আড়াই দশক পর অর্থাৎ ২৪ বছর বাদে পাক ওপেনার হিসেবে ইংল্যান্ডের মাটিতে শতরানের খরা কাটালেন মাসুদ। বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রথমদিনের শেষে ৬৯ রানে অপরাজিত তারকা ব্যাটসম্যান বাবর আজম দ্বিতীয়দিন প্রথম ওভারে ফিরলেন কোনও রান যোগ না করেই।

মাসুদ-বাবরের ৯৬ রানে মূল্যবান পার্টনারশিপের ইতি ঘটে দিনের ষষ্ঠ বলেই। এরপর দিনের বাকি সময়টা বাবরের মঞ্চে ছড়ি ঘুরিয়ে গেলেন মাসুদ। বাবরের পর দ্রুত আরও ২ উইকেট খুঁইয়ে ব্যাকফুটে চলে যায় পাকিস্তান। শাদাব খানকে সঙ্গে নিয়ে ষষ্ঠ উইকেটে ফের দলকে লড়াইয়ে ফিরিয়ে আনেন মাসুদ।

শাদাবকে সঙ্গে নিয়েই টেস্ট কেরিয়ারের চতুর্থ শতরানটি পূর্ণ করেন মাসুদ। যার মধ্যে শেষ তিনটি টেস্ট ইনিংসেই শতরান এল তাঁর ব্যাট থেকে। শাদাব ৪৫ রানে আউট হলেও শতরান পূর্ণ করার পরেও এদিন লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন কেরিয়ারের ২১তম টেস্ট খেলতে নামা মাসুদ।

দেড়শতরান এবং সেইসঙ্গে এক ইনিংসে কেরিয়ারের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ করে ব্যক্তিগত ১৫৬ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন বাঁ-হাতি ওপেনার। ৩১৯ বলে মাসুদের ইনিংস সাজানো ছিল ১৮টি চার ও ২টি ছয়ে। দলকে ৩২৬ রানের পুঁজি দিয়ে লড়াইয়ের রসদ জুগিয়ে যান পাক ওপেনার।

আর মাসুদের ব্যাটেই উদ্বুদ্ধ হয়ে যেন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ঝলসে ওঠেন মহম্মদ আব্বাস, শাহিন আফ্রিদিরা। ১২ রানের মধ্যে দুই ওপেনার রোরি বার্নস, ডম সিবলে এবং বেন স্টোকসের উইকেট হারিয়ে বসে ইংল্যান্ড। চতুর্থ উইকেটে ওলি পোপের সঙ্গে ৫০ রানের জুটি বেঁধে পরিস্থিতি কিছুটা সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন অধিনায়ক জো রুট। তবে ৫৮ বল খেলে ১৪ রান করে ইয়াসির শাহের শিকার হন তিনি।

৬২ রানে চতুর্থ উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। ৩২৬ রানের জবাবে দ্বিতীয়দিনের শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ইংল্যান্ড ৯২ রান তুলেছে। সবিমিলিয়ে মাসুদের ব্যাট এবং বোলারদের দারুণ শুরুতে দ্বিতীয়দিনের শেষে ভালো অবস্থায় পাকিস্তান।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা