লখনউ: খুনের দায়ে বন্দি জেলের অন্দরে। চলছে আইনি লড়াই। এরই মাঝে এল ভোটে লড়াই করার প্রস্তাব পেল শম্ভুলাল রেগার। ভাগ্য সহায় হলে আগামী বছরেই সাংসদ হতে পারে শম্ভুলাল।

মালদহের শ্রমিক মহম্মদ আফরাজুলকে বেদম প্রহার করে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছিল শম্ভুলাল। শুধু তাই নয়, নিজের সেই কীর্তি ভিডিও রেকর্ড করে আপলোড করেছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভয়ানক দৃশ্য দেখে শিউড়ে উঠেছিল গোটা দেশ।

আরও পড়ুন- ধর্ষিতা হন, আমরা ২০ লক্ষ টাকা দেব; বিস্ফোরক মন্তব্য রাজনেতার

ভয়ানক লাভ জেহাদি আফরাজুলকে খুন করেছিল শম্ভুলাল। হিন্দুত্ববাদের আদর্শ মুখ হতে পারে শম্ভুলাল। এমনই মনে করছে উত্তর প্রদেশ নবনির্মাণ সেনা বা ইউপিএনএস। সেই কারণেই শম্ভুলালকে লোকসভা ভোটে প্রার্থী করতে চাইছে ইউপিএনএস। আগ্রা থেকে ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে লড়াই করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

ভোটে লড়াই করার প্রস্তাব শম্ভুলাল গ্রহন করেছে বলে দাবি করেছে ইউপিএনএস। দলের পক্ষ থেকে সভাপতি অমিত জানি জানিয়েছেন যে আগ্রা থেকে শম্ভুলালকে প্রার্থী করা হবে। যোধপুর জেল থেকেই ভোটে লড়বেন শম্ভুলাল।

আরও পড়ুন- পাকিস্তানি মেয়ের গলায় ভারতের জাতীয় সঙ্গীত? দেখুন ভিডিও

কিন্তু একজন খুনের অভিযুক্তকে প্রার্থী করা হবে? যার কীর্তি দেখেছে গোটা দেশ। এই বিষয়ে ইউপিএনএস সভাপতি বলেছেন, “লোকসভা নির্বাচনে তাঁদের দলের হয়ে লড়ার জন্য হিন্দুত্ববাদী মুখের দরকার। হিন্দুত্ববাদী মুখ ছাড়া অন্য কেউ তাঁদের দলের হয়ে লড়ার জন্য যোগ্য নয়।” হিন্দুত্ববাদী মুখ হিসেবে শম্ভুলালের চেয়ে উপযুক্ত অন্য আর কেউ হতে পারে না বলেও দাবি করেছেন অমিত।

আরও পড়ুন- ভারতের টাকায় বাস-ট্রাক কিনতে টাটার সঙ্গে চুক্তি করল বাংলাদেশ

ক্যামেরার সামনে প্রথমে একের পর এক কোপ। রক্তাক্ত শরীরটা মাটিতে লুটিয়ে পড়তেই কেরোসিন ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দিলেন এক ব্যক্তি। রাজস্থানের ‘লাভ জিহাদ’-এর সেই ভিডিও সামনেই আসতেই শিউরে উঠেছিল গোটা দেশ। মালদার শ্রমিক মহম্মদ আফরাজুলকে খুনে অভিযুক্ত সেই শম্ভুলাল রেগার এবার ভোটে লড়বেন! শোনা যাচ্ছে, ২০১৯ লোকসভা ভোটে আগ্রা থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন শম্ভুলাল।