ঢাকা- ফের গরম বাংলাদেশ ক্রিকেট মহল। ক্রিকেট ধর্মঘটের নেতৃত্বে থাকা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে জুয়াড়িদের সঙ্গে সংযোগের প্রমাণ মিলেছে।তাঁকে ১৮ মাসের জন্য নিষেধাজ্ঞার কবলে ফেলতে চলছে আইসিসি। এর ফলে আসন্ন ভারত সফরে অনিশ্চিত সাকিব। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড এই বিষয়ে বিদ্রোহী সাকিবের পাশেই রয়েছে বলে জানিয়েছে।

এমনকি খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, সাকিবের ভুল ছিল বেশি কিছু করার নেই। তিনি এমন বলার পরেই আরও অনিশ্চিত সাকিব আল হাসানের সফর। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি হিসেবে সৌরভ গাঙ্গুলী দায়িত্ব নেওয়ার পরেই তৈরি হয় বাংলাদেশের এই সফর সূচি। এতে কলকাতার ইডেন গার্ডেন মাঠে প্রথমবারের মতো টেস্ট খেলতে নামবে বাংলাদেশ। সেই খেলার উদ্বোধনে থাকবেন শেখ হাসিনা, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরই মাঝে পারিশ্রমিক বৃদ্ধি সহ ১১ দফা দাবি তুলে সাকিব আল হাসান সহ জাতীয় দলের সিনিয়র সদস্যরা ধর্মঘটে যান। বাংলাদেশ ক্রিকেটে তৈরি হয় অচলাবস্থা।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানান, এই ধরণের পদক্ষেপ একটি ষড়যন্ত্র। পরে বিসিবি ক্রিকেটারদের সব দাবি মেনে নেয়। এর পরেই এলো ক্রিকেটার ধর্মঘটের নেতৃত্বে থাকা সাকিবের বিরুদ্ধে আইসিসি তদন্তের বিষয়। বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (আইসিসি)- এর তদন্তে উঠে এসেছে, সাকিব দু বছর আগে একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচের আগে এক ক্রিকেট জুয়াড়ির (বুকি) কাছ থেকে প্রস্তাব পেয়েছিলেন।

তদন্তে আরও উঠে এসেছে, সাকিব সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন। তবে আইসিসি দুর্নীতি দমন বিভাগে কিছুই না জানিয়ে বিষয়টি গোপন করেন। জুয়াড়িদের কল রেকর্ড ট্র্যাকিং করে এই ব্যাপারে আইসিসি সব জানতে পারে। আইসিসি তরফে যোগাযোগ করা হয় সাকিব আল হাসানের সঙ্গে। আইসিসির অ্যান্টি কোরাপশন বিভাগের কাছে ভুল স্বীকার করেন সাকিব। এদিকে বিসিবি মনে করছে, সাকিব ছাড়াই আপাতত ভারত সফরে যেতে হবে বাংলাদেশ দলকে।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।