Aryan Khan

মুম্বাইঃ কিং খানের (Shahrukh Khan) ছেলে-মেয়ে বলিউডের অন্যতম চর্চিত স্টারকিড (star kid)। আমেরিকার ইউনিভার্সিটি অফ সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া (University of Southern California) থেকে স্নাতক পাশ করলেন শাহরুখ খানের পুত্র আরিয়ান খান (Aryan Khan)। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এই ছবি। আরিয়ানের গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করার এই ছবিতে উচ্ছ্বসিত নেটিজেনরা। স্নাতকতা পাশ করে এবার কি বাবার পথেই হাঁটবেন আরিয়ান? কৌতূহল নেটিজেনদের।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, শাহরুখ পুত্র আরিয়ান সনাতনী কালো ‘গ্রাজুয়েশন রোব’ (Graduation robe) পরে আছেন। গলায় রয়েছে লাল উত্তরীয়, হাতে গ্রাজুয়েশনের ডিগ্রি। ব্যাকব্রাশ করা চুল। ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ ক্যালিফোর্নিয়ার গ্রাজুয়েশনের এই অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছিল কোভিডের সকল প্রটোকল মেনেই। আরিয়ান নিজে সোশ্যাল মিডিয়ায় থেকে যদিও দূরেই থাকেন। কিন্তু তার অনুগামীদের দ্বারা অসংখ্যবার শেয়ার হয়েছে এই ছবি। তার দাঁড়ানোর ভঙ্গি, চলাফেরা সকল কিছুতেই অনুগামীরা শাহরুখের ঝলক খুঁজে পান। তাই আরিয়ান স্বগর্ভে নিজের পরিচয় দেন ‘আরিয়ান শাহরুখ খান’।

ইউনিভার্সিটি অফ সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া স্কুল অফ সিনেম্যাটিক আর্টস (University of Southern California School of Cinematic Arts) থেকে স্নাতক পাশ করার আগে আরিয়ান লন্ডনের কেন্টের সেভেনওকস স্কুলের (Sevenoaks School) ছাত্র ছিলেন। সেখানে তার সহপাঠী ছিলেন বিগ বি অমিতাভ বচ্চনের মেয়ের ঘরের নাত্নি নব্যা নাভেলি নন্দা (Navya Naveli Nanda)। স্কুলে একসঙ্গে পড়াকালীন তাদের ছবিকে কেন্দ্র করে দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্কের গুঞ্জনও উঠেছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। আরিয়ান ২০১৬ সালে সেভেনওকস স্কুল পাশ করেছেন। তারপরেই সাউথ ক্যালিফোর্নিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে পাড়ি।

শাহরুখের মেয়ে সুহানা (Suhana Khan) পড়াশুনা করছেন নিউইয়র্কের কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (Columbia University)। ছোট থেকেই সুহানা চায় অভিনয় জগতে আসতে। কিন্তু শাহরুখের জবাব, অভিনয় জগতে পা রাখার আগে শেষ করতে হবে পড়াশুনা। অন্যদিকে আরিয়ান অভিনয়ে আসার কোন ইচ্ছা কখনও প্রকাশ করেননি। সেকথা শাহরুখই একাধিকবার সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন। তবে অভিনয় আসার ইচ্ছা না থাকলেও ২০১৯ সালে ‘লায়ন কিং’ (Lion King)এর হিন্দি সংস্করণে সিম্বা’র চরিত্রে ভয়েস ওভার দিয়েছিলেন আয়িয়ান। আর মুসাফা’র চরিত্রে ভয়েস ওভার দিয়েছিলেন শাহরুখ খান।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.