স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সভা বাতিল করেছিল বাঁকুড়া জেলা প্রশাসন৷ বালুরঘাটেও সভা বাতিলের মত ঘটনা ঘটে৷ এবার আরেক বিজেপি হেভিওয়েট নেতা শাহনওয়াজ হুসেনের সভা বাতিল বলে ঘোষণা করল মুর্শিদাবাদ জেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার দুপুরে মুর্শিদাবাদের লালবাগে বিজেপির সভা করার কথা ছিল। সেই সভায় যোগ দিতে এদিন দুপুরেই মুর্শিদাবাদে যান কেন্দ্রীয় কমিটির মুখপাত্র শাহনওয়াজ হুসেন৷

কিন্তু জেলা প্রশাসন অনুমতি না দেওয়ায় সভা বাতিল করা হয় বিজেপির পক্ষ থেকে। এদিন সভা বাতিল হওয়াতে চরম ক্ষোভ উগরে দেন কেন্দ্রীয় কমিটির এই মুখপাত্র৷ এদিন লালবাগের একটি বেসরকারি অনুষ্ঠানের পর বাড়িতে সাংবাদিক বৈঠক করে জেলা প্রশাসনের করা সমালোচনা করেন শাহনওয়াজ৷ এদিন তিনি বলেন ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূলের মহাজোট তৈরি হয়েছে পুলিশের সাথে৷ এখানে পুলিশ তৃণমূলের থেকে বড় হয়ে গিয়েছে৷’

তিনি আরও বলেন ‘মুর্শিদাবাদ জেলায় মঙ্গলবার ও বুধবার দুটি সভা ছিল বিজেপির৷ কিন্তু প্রশাসন একটি সভারও অনুমতি দেয়নি। যতই মুখ্যমন্ত্রী দমন করুক না কেন আমাদের সংগ্রাম চলবেই। এখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তুঘলকি রাজ চালাচ্ছেন। এখানকার পুলিশ তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীর মতো কাজ করছে। এর জন্য বিজেপির সংগ্রাম চলবেই৷ এই জন্য আজ আমাদের সভা বাতিল করা হয়েছে কিন্তু আমার মুর্শিদাবাদ জেলায় আসা বন্ধ করতে পারেনি।’

তিনি আরও বলেন ‘এক সময় ইন্দিরা গান্ধীর সময় জরুরি অবস্থায় আমরা লড়াই করেছি, আর আজ পশ্চিমবঙ্গের এই সরকারের সাথে লড়াই করেছি। আমার এই সরকারকে উৎখাত করবোই। এখানকার পুলিশ সুপারকে বলতে হবে তারা কেন্দ্রীয় সরকার থেকে বেতন পান না তৃণমূলের কাছ থেকে। এখানে পুলিশ প্রশাসন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কর্মীর মতো কাজ করছেন।’

সভায় অনুমতি না পাওয়ায় ওই বেসরকারি অনুষ্ঠান থেকে পায়ে হেঁটে কর্মী সমর্থকদের নিয়ে লালবাগ এসডিও অফিস পর্যন্ত যান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শাহানওয়াজ হুসেন৷