মুম্বই: গুঞ্জনের সঙ্গে নিজের হ্যাঁ মিলিয়ে হাজার হদয় ভেঙেছে শাহিদ, জানিয়ে দিয়েছেন এই বছরের শেষেই বিয়েটা সেরে ফেলতে চান তিনি। কিন্তু এখন শোন যাচ্ছে বছর শেষে নয় ১০ জুন চার হাত এক হবে মীরা-শাহিদের।

এরমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে বিয়ের প্রস্তুতি। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী জুনই হতে চলেছে শাহিদ মীরার বিয়ে। গত বছর কফি উইথ করণ শোতে এসে শাহিদ জানিয়েছিলেন, কোনও অভিনেত্রীকে বিয়ে করতে চান না তিনি। করিনা কাপুর, প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার সঙ্গে তার সম্পর্ক পরিণতি পায়নি। সব অভিনেত্রীই তার সহকর্মী। তাই কোনও ভাবেই আর নিজের কর্মক্ষেত্রে সম্পর্কে জড়াতে চান না শাহিদ। তবে, তিনি যে এবার বিয়ের ব্যাপারে ভাবছেন সেই কথাও জানিয়েছিলেন শাহিদ। তাই একেবারে বলিউডের বাইরে কারও সঙ্গে তার এনগেজমেন্টের খবরে অবাক হননি কেউই।

বলিঅন্দরের খবর, ধর্মীয় সংগঠন রাধাস্বামী সৎসঙ্গ বিলাসে আলাপ হয়েছিল শাহিদ-মীরার। শাহিদ ও তাঁর বাবা দুজনেই এই সংগঠনটির একনিষ্ঠ ভক্ত। মীরা দিল্লির বাসিন্দা। দিল্লির এলএসআর কলেজের স্নাতক স্তরে ইংরেজি নিয়ে পড়াশোনা করছেন তিনি। এর আগে বসন্ত ভ্যালি স্কুলে পড়েছেন তিনি।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।