নয়াদিল্লি: শাহিদ আফ্রিদি-গৌতম গম্ভীর তরজা মিটছে না কিছুতেই। আত্মজীবনী ‘গেম চেঞ্জারে’ প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার তথা পূর্ব দিল্লি কেন্দ্র থেকে বিজেপি-র নবনির্বাচিত সাংসদ গৌতম গম্ভীরকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেছিলেন প্রাক্তন পাক তারকা অল-রাউন্ডার। এরপর সোশ্যাল মিডিয়ায় দু’পক্ষের মধ্যে একাধিকবার উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের সাক্ষী থেকেছেন দু-দেশের ক্রিকেট অনুরাগীরা।

শনিবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ফের একবার গৌতম গম্ভীরকে একহাত নিলেন আফ্রিদি। উল্লেখ্য, পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় জওয়ানদের প্রাণ হারানোর ঘটনায় বিশ্বকাপে ভারতীয় দলকে পাক ম্যাচ না খেলার দাবি জানিয়েছিলেন গৌতম গম্ভীর। সাংবাদিক সম্মেলনে সেই প্রসঙ্গ উঠতেই বিজেপির নবনির্বাচিত সাংসদকে মৌখিক আক্রমণ করে বসলেন প্রাক্তন পাক অল-রাউন্ডার।

আরও পড়ুন: শুটিং বিশ্বকাপে বছরের দ্বিতীয় সোনা জয় অপূর্বী চান্ডেলার

গৌতম গম্ভীরের দাবি এক্ষেত্রে কতটা যুক্তিযুক্ত ছিল। প্রশ্নের উত্তরে সাংবাদিকদের পালটা আফ্রিদি প্রশ্ন ছুঁড়ে বলেন, ‘আপনাদের মনে হয় গম্ভীর যা বলেছে, সেটা কোনও সচেতন নাগরিকের মন্তব্য? শিক্ষিত মানুষদের কখনও এমন মন্তব্য করতে শুনেছেন?’ একইসঙ্গে গম্ভীরের নির্বাচনে জয়লাভ প্রসঙ্গে অসন্তুষ্ট আফ্রিদির প্রশ্ন, ‘গম্ভীরকে সাংসদ হিসেবে নির্বাচন করেছেন কারা?’

আরও পড়ুন: ডেড বল বিতর্কে ৭ রান পেনাল্টির প্রস্তাব সচিনের

সম্প্রতি আত্মজীবনী ‘গেম চেঞ্জার’-এ গৌতম গম্ভীর প্রসঙ্গে ওয়ান-ডে ক্রিকেটে ৩৭ বলে সেঞ্চুরির মালিক লেখেন, ‘বাইশ গজে কিছু লড়াই ছিল ব্যক্তিগত, কিছু লড়াই ছিল পেশাদার। গৌতম গম্ভীর একজন নিম্ন মানসিকতার মানুষ। যাঁর কোনও ব্যাক্তিত্ব নেই। বাইশ গজে সেই অর্থে নেই কোনও রেকর্ডও। যা আছে তা হল অ্যাটিটিউড সমস্যা।’ পালটা দিতে ছাড়েননি গম্ভীরও। আফ্রিদিকে মানসিক রোগী বর্ণনা করে তাঁকে চিকিৎসার জন্য ভারতে আসার ভিসা দিতে চেয়েছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: পৃথ্বীর ব্যাটে চ্যাম্পিয়ন নর্থ মুম্বই

পাশাপাশি বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে বাদ পড়ে জুনেইদ খানের অভিনব প্রতিবাদ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে আফ্রিদি বলেন, ‘আমার মতে জুনেইদ যা করেছে, তার প্রয়োজন ছিল না। কখনও কখনও চুপ থেকে প্রতিবাদ জানানোই শ্রেয়।’