করাচি: ডেপুটি রোহিত শর্মাকে টপকে টি-২০ ক্রিকেটে সর্বাধিক রান সংগ্রাহক হওয়ার দিনে বিরাট কোহলির প্রশংসায় পঞ্চমুখ শাহিদ আফ্রিদি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ভারত অধিনায়কের ম্যাচ জেতানো ইনিংস দেখে প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার কোহলিকে ‘মহান ক্রিকেটার’ আখ্যা দিলেন।

টি-২০ ক্রিকেটে সর্বাধিক রান সংগ্রাহক হওয়ার পাশাপাশি বুধবার সংক্ষিপ্ততম ফর্ম্যাটে নিজের ব্যাটিং গড় ফের পঞ্চাশ পার করেন ভারত অধিনায়ক। বিশ্বক্রিকেটে এই মুহূর্তে কোহলিই একমাত্র ব্যাটসম্যান, তিনটি ফর্ম্যাটেই যার ব্যাটিং গড় পঞ্চাশোর্ধ্ব। মোহালিতে এদিন ৫২ বলের ৭২ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংস আসে কোহলির ব্যাট থেকে। আর ম্যাচ জয়ের পরই কোহলির এই অনন্য কৃতিত্বের পরিসংখ্যান নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে শেয়ার করে আইসিসি।

আইসিসি’র সেই টুইট রিটুইট করে ভারত অধিনায়কের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন শাহিদ আফ্রিদি। প্রাক্তন পাক অধিনায়ক ক্যাপশন হিসেবে লেখেন, ‘অভিনন্দন বিরাট কোহলি। তুমি সত্যিই একজন মহান ক্রিকেটার। তোমার সাফল্য বজায় থাকুক। বিশ্বজুড়ে ক্রিকেট অনুরাগীদের এভাবেই আনন্দ দিয়ে যাও।’ উল্লেখ্য, বরাবরই আফ্রিদির পছন্দের ক্রিকেটারদের তালিকায় প্রথম সারিতে রয়েছেন বিরাট কোহলি। আফ্রিদির সর্বকালের সেরা বিশ্বকাপ স্কোয়াডে ভারতীয় ক্রিকেটার হিসেবে সচিন তেন্ডুলকর এবং এমএস ধোনির পাশে রয়েছে বিরাট কোহলির নাম।

উল্লেখযোগ্যভাবে, টি-২০ ক্রিকেটে এদিন শাহিদ আফ্রিদির একটি নজির স্পর্শ করেন বিরাট কোহলি। প্রোটিয়াদের ছুঁড়ে দেওয়া ১৫০ রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে মোহালিতে কোহলির ব্যাটেই জয় নিশ্চিত করে ভারত। স্বাভাবিকভাবেই ৪টি চার ও ৩টি ছয়ে ৭২ রানের অধিনায়কোচিত ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতে নেন কোহলি। আর সেইসঙ্গে টি-২০ ক্রিকেটে সর্বাধিক ম্যাচ সেরা হওয়ার নিরিখে (১১) আফ্রিদিকে ছুঁয়ে ফেলেন তিনি। সামনে কেবল আফগান অল-রাউন্ডার মহম্মদ নবি (১২)।

বিরাট ছাড়াও এদিন ভারতের জয়ে ব্যাট হাতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা গ্রহণ করেন শিখর ধাওয়ান। ১৫০ রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে ৩১ বলে এদিন গব্বরের ৪০ রানের ইনিংস সাজানো ছিল ৪টি চার ও ১টি ছয়ে। লং অনে ডেভিড মিলারের চোখ-ধাঁধাঁনো ক্যাচে ডাগ-আউটে ফেরেন তিনি। ব্যর্থ ঋষভ পন্তের সংগ্রহ মাত্র ৪ রান। অধিনায়কের সঙ্গে অপরাজিত থেকে দলকে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন শ্রেয়স আইয়ার। ১৪ বলে ১৬ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।