শারজা: টেস্ট ফর্ম্যাট কোনওভাবেই বিবেচনাই নেই৷ ভবিষ্যতে অলিম্পিকের আসরে ক্রিকেট খেলা হলে তা ওয়ান ডে নাকি টি-২০ ফর্ম্যাটে খেলা হবে, তা নিয়ে আলোচনা হয় বিস্তার৷ তবে প্রাক্তন পাক অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদি একটুন ভিন্ন মত পোষণ করেন৷ আফ্রিদি মনে করেন, ওয়ান ডে বা টি-২০ নয়, অলিম্পিকে অন্তর্ভূক্ত হওয়া উচিত টি-১০ ক্রিকেট৷

আরও পড়ুন: আফ্রিদির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করল পিএসএল ফ্র্যাঞ্চাইজি

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেও আফ্রিদি ঘরোয়া টি-২০ লিগ খেলেন এখনও৷ এই নিয়ে প্রথম দু’মরশুমের টি-১০ লিগেও অংশ নেন তিনি৷ ক্যাপ্টেন হিসাবে পাখটুন দলকে টি-১০ লিগের ফাইনালেও তোলেন আফ্রিদি৷ যদিও ফাইনালে শেষ রক্ষা হয়নি৷ তাঁর দল খেতাবি লড়াইয়ে ড্যারেন স্যামির নেতৃত্বাধীন নর্দার্ন ওয়ারিয়র্সের কাছে ২২ রানে হেরে বসে৷ তবে ব্যাটে-বলে সার্বিকভাবে সফল হন আফ্রিদি৷

এখনও পর্যন্ত সরকারিভাবে আফসিসি’র স্বীকৃতি না পেলেও টি-২০ লিগের উত্তেজনা দারুণভাবে সাড়া ফেলেছে ক্রিকেটবিশ্বে, যা দেখে আফ্রিদি দশ ওভারের ক্রিকেটকে অলিম্পিকের জন্য সব থেকে উপযোগী বলে মন্তব্য করেন৷

আরও পড়ুন: ইমরানকে আফ্রিদির ছক্কা: পাকিস্তান সামলাও পরে কাশ্মীর চাইবে

পাক তারকার কথায়, ‘আমার মনে হয় অলিম্পিকের জন্য এটাই ক্রিকেটের সেরা ফর্ম্যাট৷ এই ফর্ম্যাটেই অলিম্পিকের আসরে সব থেকে আকর্ষক ক্রিকেট উপহার দেওয়া সম্ভব৷ আসল কথা হল, নতুন এই ফর্ম্যাটকে সবাই উপভোগ করছি৷’

পরে আফ্রিদি এই ফর্ম্যাটে অল্প সময়ের মধ্যে ম্যাচ নিস্পত্তি হওয়ার বিষয়টিকেও অলিম্পিকের জন্য যথাযথ বলে বর্ণনা করেন৷ তিনি বলেন, ‘এটা অত্যন্ত দ্রুত খেলা হয়৷ বোলারদের জন্য যথার্থ পরীক্ষা এই ফর্ম্যাটটা৷ ব্যাটসম্যানদেরও নিজেদের বিগ হিটিং স্কিলের পরীক্ষা দিতে হয়৷ দারুণ সব শট খেলতে হয়৷ আমি মনে করি টি-১০ ফর্ম্যাট ক্রিকেট খেলাটাকেই বদলে দেবে৷ কম সময়ে খেলা হয় বলে বিশ্বের সর্বত্র এটাকে ছড়িয়ে দেওয়া সম্ভব হবে৷’

আরও পড়ুন: ‘কাশ্মীর নিয়ে আফ্রিদির বক্তব্যকে সকল পাক নাগরিক সমর্থন করে’

উল্লেখ্য, আইসিসি ২০২২ কমনওয়েলথ গেমসে মহিলা টি-২০ ক্রিকেট খেলার জন্য আবেদন জানিয়েছে৷ আইসিসি’র তরফে অলিম্পিকেও ক্রিকেট অন্তর্ভূক্ত করার প্রয়াস চালানো শুরু হয়েছে৷ এখন দেখার যে, টি-১০ লিগের জনপ্রিয়তা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থাকে নতুন করে ভাবতে বাধ্য করে কি না৷