নয়াদিল্লি: ভারতের ইতিহাসে এটাই প্রথমবার, যেখানে ৭৭ বছরের পুরনো কর্পোরেট হাউস ডালমিয়া ভারত গ্রুপ পাঁচ বছরের জন্য দত্তক নিয়েছে দিল্লির লাল কেল্লা৷ মুঘল বাদশাহ শাহজাহান ১৭শতকে এর নির্মাণ করিয়েছিলেন৷ ইংরেজরা ভরত ছেড়ে যাওয়ার পর প্রতি বছর ১৫ অগস্ট প্রধানমন্ত্রী জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে এখানে স্বাধীনতা দিবস পালন করেন৷ ইন্ডিগো এয়ারলাইনস্ এবং জিএমআর গ্রুপকে টেক্কা দিয়ে মোদী সরকারের অ্যাডপ্ট আ হেরিটেজ স্কিমের ভিত্তিতে ডালমিয়া গ্রুপ এই দত্তক নিয়েছে বলে ডানা গিয়েছে৷

পড়ুন: বন্দেমাতরমের অবমাননা করেছেন রাহুল, দাবি বিজেপির

ডালমিয়া গ্রুপের সিইও মহেন্দ্র সিংঘী জানান, ৩০দিনের মধ্যে লাল কেল্লায় কাজ শুরু করে দেওয়া হবে৷ এই কেল্লা পাঁচ বছরের জন্য নেওয়া হয়েছে৷ পরে এই চুক্তি বৃদ্ধিও করা হতে পারে৷ তিনি আরও জানান, প্রত্যেক পর্যটক তাদের কাছে গ্রাহকের মতোই, তাই তারা যাতে একবার নয়, বার বার আসে সেই চেষ্টাই করা হবে৷ ইউরোপের বহু কেল্লাই লাল কেল্লার থেকে ছোট কিন্তু তাদের রক্ষণাবেক্ষণ অনেক উন্নতমানের৷ লাল কেল্লার ক্ষেত্রেও সেই যত্নি নেওয়া হবে যাতে সেটি আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠতে পারে৷

পড়ুন: জমানো গয়না বিক্রি করে সেনাকে দিলেন এই দম্পতি

সূত্রের খবর, পর্যটন এবং সংস্কৃতি মন্ত্রকের অনুমতি পেলে ডালমিয়া ভারত গ্রুপ পর্যটকদের থেকে করও আদায় করা হবে৷ আর এই টাকা থেকে রক্ষণাবেক্ষণের ওপর আরও জোর দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে৷ স্বাধীনতা দিবসের কথা মাথায় রেখে লাল কেল্লার দায়িত্ব নিরাপত্তা সংস্থার হাতে দিতে হবে, যাতে প্রধানমন্ত্রীর পতাকা উত্তোলনের সময় নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও আঁটোসাঁটো করা যায়৷ প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাঁর কার্যকালের মেয়াদের মধ্যে চলতি বছরে শেষবার লাল কেল্লা থেকে পতাকা উত্তোলন করবেন৷