সেন্ট লুসিয়া: গত সেপ্টেম্বরে ইন্ডিয়া ক্যাপ হাতে পেয়েছেন৷ কেরিয়ারের পঞ্চম আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচ খেলতে নেমেই কিংবদন্তি সচিন তেন্ডুলকরের ৩০ বছরের পুরনো রেকর্ড ভেঙে দিলেন ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের নতুন ওপেনার শেফালি বর্মা৷

সুরাটে দক্ষিণ আফ্রিকার মহিলা ক্রিকেট দলের বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজে জাতীয় দলে আত্মপ্রকাশ করেন হরিয়ানার ডান-হাতি ব্যাটার শেফালি৷ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের প্রথম টি-২০ ম্যাচে ব্যাট হাতে মাঠে নেমেই অনবদ্য হাফসেঞ্চুরি করেন তিনি৷ ৬টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ৪৯ বলে ৭৩ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলার পথে ইতিহাসে জায়গা করে নেন তিনি৷ পিছনে ফেলে দেন সচিন তেন্ডুলকরের ১৯৮৯ সালে গড়া অনন্য নজিরকে৷

আরও পড়ুন: দুই ওপেনারের দাপটে একতরফা জয় ভারতের

এতদিন ভারতের হয়ে সব থেকে কম বয়সে আন্তর্জাতিক হাফ-সেঞ্চুরি করা ক্রিকেটার ছিলেন সচিন৷ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দুরন্ত অর্ধশতরান করা শেফালি এবার সেই রেকর্ড ছিনিয়ে নিলেন মাস্টার ব্লাস্টারের কাছ থেকে৷ ১৫ বছর ২৮৫ দিন বয়সে শেফালি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজের প্রথম হাফ-সেঞ্চুরি করেন৷ ১৯৮৯ সালের নভেম্বরে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কেরিয়ারের প্রথম টেস্টে হাফ-সেঞ্চুরি করার সময় সচিনের বয়স ছিল ১৬ বছর ২১৪ দিন৷ অর্থাৎ, এখন সব থেকে কম বয়সে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে হাফ-সেঞ্চুরি করা ভারতীয় ক্রিকেটার হলেন শেফালি৷

সচিনের রেকর্ড ভাঙা ছাড়াও এই ম্যাচেই আরও একটি ভারতের সর্বকালীন রেকর্ডের সঙ্গে জড়িয়ে যান শেফালি৷ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম টি-২০ ম্যাচে স্মৃতি মন্ধনার সঙ্গে ওপেনিং জুটিতে ১৪৩ রান যোগ করেন তিনি৷ মহিলা টি-২০ ক্রিকেটে যে কোনও উইকেটে এটিই এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ রানের পার্টনারশিপ৷

আরও পড়ুন: চাহারের হ্যাটট্রিকে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ

উল্লেখ্য, ভারত সিরিজের প্রথম টি-২০ ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৮৪ রানে পরাজিত করে৷ প্রথমে ব্যাট করে ভারতের মেয়েরা ২০ ওভারে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ১৮৫ রান তোলে৷ জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১০১ রানে আটকে যায়৷