ঘটনার সঙ্গে ছবির কোনও যোগাযোগ নেই।

সিমলা: ‘খুব তাড়াতাড়িই তোমায় বিয়ে করব’, এই প্রতিশ্রুতি দিয়েই দিনের পর দিন যুবতীর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ যুবকের বিরুদ্ধে৷ হোটেলে নিয়ে গিয়েও যুবতীর সঙ্গে সহবাস করে ওই যুবক৷ কিন্তু যুবতী বিয়ের কথা বললেই সে সম্পর্কে অস্বীকার করে৷ একদিন যুবতীকে হোটেলে একা রেখে পালিয়েই যায় অভিযুক্ত যুবক৷ সিমলার চিড়গাঁও এলাকার ঘটনা৷ চিড়গাঁও থানায় রামপুরের বাসিন্দা ওই যুবকের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছে নির্যাতিতা যুবতী৷ যুবতীর বয়ানের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷

যুবতী তার বয়ানে জানিয়েছে,  একটি অনুষ্ঠানে যুবকের সঙ্গে পরিচয় হয় তার৷ এরপরেই যুবতীকে রামপুরের একটি হোটেলে নিয়ে যায়৷ সেখানেই বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সে যুবতীকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ।  বিয়ের কথা বললেই অভিযুক্ত যুবক রেগে যেত বলে অভিযোগ।  একদিন রামপুরে যুবতীকে একা ফেলে রেখে সে পালিয়ে যায়৷ এরপরেই নিজের বাড়ি পৌঁছে বাড়ির লোকেদের ঘটনার কথা জানায় যুবতী৷ ফোনেও যুবকের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে যুবতী৷ কিন্তু যুবক তার ফোনের উত্তর দেয়নি৷ এরপরেই শুক্রবার রাতে চিড়গাঁও থানায় যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়৷

নির্যাতিতা তরুণী জানিয়েছেন, প্রত্যেক রাতে জোর করে সে শারীরিকভাবে আমার সঙ্গে মিলিত হতে চাইত সে।   এই বিষয়ে বারন করলেও কোনও কথা অভিযুক্ত যুবক শুনত না বলে অভিযোগ নির্যাতিতা তরুণীর।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।