কথায় আছে প্রতিভাকে লুকিয়ে রাখা যায় না৷ একদিন না একদিন তা বেড়িয়ে আসবেই৷ প্রতিভা গ্রাম, শহরের ফারাক বোঝে না৷ সময়, সুযোগ পেলে তা প্রকাশ পাবেই৷ যেমন ভারতের প্রত্যন্ত গ্রামের অজানা, অজ্ঞাত মানুষের মাধ্যমে এমন আবিষ্কার হয়েছে যা সত্যিই চমকে দেবে সকলকে৷ নতুন আবিষ্কারের জন্য উদ্বুদ্ধ করবে সকলকে৷

সৌরশক্তি চালিত মশা মারণ যন্ত্র: ম্যাথুজ কে. ম্যাথু নামের এক গ্রাম্য ভারতীয়ের আবিষ্কার করা এই যন্ত্র নিস্তার দেবে আপনাকে মশার হাত থেকে৷ কেমন ভাবে কাজ করবে এই মশা মারণ যন্ত্র? জানা গিয়েছে, কোন বিশেষ গন্ধের মাধ্যমে প্রথমে মশাদের আকৃষ্ট করবে এই যন্ত্র৷ সূর্যের আলোতে বসিয়ে রাখলে তাপে গরম হয়ে উঠবে এটি৷ মশা একবার ভিতরে ঢুকলে আর বেরোবার রাস্তা পাবে না৷ তাপে ভিতরেই মারা পড়বে মশারা৷

লেবু কাটার মেশিন: ভারতীয় এম. নাগারাজনের তৈরি এই মেশিন লেবুর সরবত বিক্রেতাদের কাছে স্বর্গের সমান হতে পারে৷ একবারে একাধিক লেবু অনায়াসে কাটা যেতে পারে এই মেশিনে৷ বিশেষ করে ছোট ব্যবসায়ীদের জন্য খুব উপযোগী হয়ে উঠতে পারে এই মেশিন৷

স্বয়ংক্রিয় খাবার তৈরির মেশিন: অভিষেক ভগতের তৈরি এই যন্ত্র বিশেষ করে কাজে লাগতে পারে ঘরেরে গিন্নিদের জন্য৷ মেশিনের বারোটি আলাদা আলাদা কুঠুরিতে রাখা যেতে পারে বারোটি রান্নার সরঞ্জম৷ যখন যেটা রান্না করতে মন চাইবে কিছু সময়ের তৈরি হয়ে যাবে সেই উপাদেয় পদ৷

প্যাডেল চালিত ওয়াশিং মেশিন: যখন আমাদের বাড়ির মেয়েরা খেলাধুলা করে বেরায় সেই বয়সে প্যাডেল চালিত ওয়াশিং মেশিন আবিষ্কার করেছিল রেমা জোশ(১৪)৷ তাঁর মা অসুস্থ হয়ে পড়ায় বাড়ির কাজ করতে হত তাকে ও তাঁর বোনকে৷ সেই সময়ে কাজের সুবিধার জন্য প্যাডেল চালিত ওয়াশিং মেশিন আবিষ্কার করে ফেলেছিল রেমা৷

ভাসমান সাবান: বিদেশ পাওয়া গেলেও৷ এদেশে কিন্তু এখনও অমিল ভাসমান সাবান৷

ওয়াটার টায়ার: ভারতের কৃষিজীবী সমাজের কাছে অন্যতম উপকারী বস্তু হয়ে উঠতে পারে এই টায়ার৷ কারণ মাঠে ট্রাক্টর চালাতে ওজনদার টায়ার ব্যবহার করতে হয় তাদের৷ যার দাম প্রচুর৷ তবে জল ভর্তি টায়ার ব্যবহার করলে খরচ কমবে৷

সহজে গাছে ওঠার মেশিন: সবাই গাছে উঠতে পারে বাজি ধরলেও একথা কেউ বলতে পারবে না৷ তবে এম.জে জোসেফের এই আবিষ্কার ব্যবহার করলে সত্যি যে কেউ গাছে চড়তে পারবে৷