মাদ্রিদ: চিনের ক্লাবে খেলার লোভনীয় প্রস্তাব ছিল সার্জিও রামোসের কাছে৷ তবে নিয়মের গেড়োয় আটকে যাচ্ছেন তিনি৷ ইচ্ছে থাকলেও এ যাত্রায় চিনের ক্লাবে খেলা কার্যত সম্ভব নয় রিয়াল মাদ্রিদ অধিনায়কের পক্ষে৷

গত দু’দশকে রিয়ালের সব থেকে খারাপ মরশুম কেটেছে এবার৷ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে যাওয়া ছাড়াও লা লিগা এবং কোপা ডেল রে’র ট্রফিও ঘরে তুলতে পারেনি তারা৷ এমন হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর রিয়াল দলনায়ক রামোসকে বিতর্কের মুখে পড়তে হয়৷ বিশেষ করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ইচ্ছে করে কার্ড দেখে নির্বাসিত হওয়ার পর স্প্যানিশ ডিফেন্ডারকে কাঠগড়ায় তোলে ফুটবলমহল৷

আরও পড়ুন: World Cup 2019: নিউজিল্যান্ড ম্যাচের ফলাফলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ দেখছেন না জাদেজা

ক্লাবের অত্যন্ত আস্থাভাজন হলেও রামোস রিয়াল ছাড়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন ক্লাব প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনো পেরেজের কাছে৷ তবে তাঁর শর্ত মেনে নেয়নি ক্লাব কর্তৃপক্ষ৷ চিনের ক্লাবের খেলার জন্য রামোস কোনও ট্রান্সফার ফি ছাড়াই তাঁকে ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ জানান রিয়াল প্রসেডিন্টের কাছে৷ প্রাথমিকভাবে ক্লাবের বোর্ড মিটিংয়ে আলোচনা করে নিজেদের সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে রামোসকে আশ্বস্ত করেন পেরেজ৷ তবে পরে রিয়ালের তরফে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয় যে, দলের অধিনায়ককে কোনও ট্রান্সফার ফি ছাড়া ছেড়ে দেওয়া সম্ভব নয় তাদের পক্ষে৷

আরও পড়ুন: World Cup 2019: স্টেজ রিহার্সালে হোঁচট খেলে বিশ্বকাপে ফল ভালো করে ভারত

এ প্রসঙ্গে পেরেজ বলেন, ‘রামোস ও তাঁর এজেন্ট আমার অফিসে দেখা করতে আসে এবং বলে যে, চিনের ক্লাবে খেলার ভালো প্রস্তাব রয়েছে রামোসের কাছে৷ তবে চিনের লিগের নিয়ম অনুযায়ী কোনও ফুটবলারকে দলে নিতে হলে ট্রান্সফার ফি দেওয়া যাবে না৷ তাই ক্লাব রামোসকে যদি ট্রান্সফার ফি ছাড়াই ছেড়ে দিতে রাজি হয়, তবে চিনের লিগে খেলা সম্ভব হবে ওর পক্ষে৷’

আরও পড়ুন: ডাগ-আউটে স্যার ফার্গুসন, রবিবাসরীয় ওল্ড ট্র্যাফোর্ড দাপালেন বেকহ্যাম-সোল্কজায়েররা

পরে রিয়াল প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, ‘তৎক্ষণাৎ আমার পক্ষে সিদ্ধান্ত জানানো সম্ভব ছিল না৷ আমি বলি ক্লাবের সঙ্গে আলোচনা করে পরে জানানো হবে ওকে৷ নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে সিন্ধান্ত নিই যে, রিয়ালের মতো দলের ক্যাপ্টেনকে ট্রান্সফার ফি ছাড়া চুক্তির মাঝ পথে ছেড়ে দেওয়া সম্ভব নয়৷ তাহলে বাকি ফুটবলারদের কাছে নেতিবাচর বার্তা পৌঁছবে৷’