প্যারিস: পায়ের চোটে (অ্যাকিলিস ইনজুরি) চলতি ফরাসি ওপেন থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিলেন সেরেনা উইলিয়ামস। স্বাভাবিকভাবেই কিংবদন্তি মার্গারেট কোর্টের ২৪তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের নজির ছোঁয়ার অপেক্ষা আরও দীর্ঘায়িত হল তাঁর। বুধবার ফরাসি ওপেন আয়োজকদের পক্ষ থেকে সেরেনার নাম প্রত্যাহারের বিষয়টি জানানো হয়। উল্লেখ্য, বুধবারই টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে কোর্টে নামার কথা ছিল সেরেনার।

সোমবার প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে স্বদেশী ক্রিস্টি আনকে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে পৌঁছেছিলেন সেরেনা। প্রথম রাউন্ডের ম্যাচেই দ্বিতীয় সেট চলাকালীন পায়ের যন্ত্রণা অনুভব করেন মার্কিন তারকা। গত ইউএস ওপেন চলাকালীনও অ্যাকিলিস ইনজুরির শিকার হয়েছিলেন সেরেনা। বুধবার সেভতানা পিরোঙ্কোভার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল সেরেনার। তার আগেই টুর্নামেন্ট থেকে নাম সরিয়ে নিলেন তিনি। এমনকি ২০২০ তাঁর পক্ষে আর কোনও টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করার বিষয়টিও অনিশ্চিত বলে দাবি করেছে তিনি।

সেরেনা জানিয়েছেন, ‘আমাকে চার থেকে ছয় সপ্তাহ চুপচাপ বসে থেকেই কাটাতে হবে বলে মনে করা হচ্ছে। আমার হাঁটতেও ভীষণ কষ্ট হচ্ছে স্বাভাবিকভাবেই আমাকে এর নিষ্কৃতি পাওয়ার চেষ্টা করতেই হবে। অ্যাকিলিস এমন একটা ইনজুরি যার সঙ্গে কোনওরকম সমঝোতা করা যায় না। আমার মনে হয় অন্যতম খারাপ একটা ইনজুরি এটা। আমি আপাতত সুস্থ হয়ে উঠতে চাই।’

তিনবারের ফরাসি ওপেন জয়ী সেরেনা আরও বলেন, ‘আমি জানি না চলতি বছর আর টুর্নামেন্ট খেলতে পারব কীনা। এই চোটের যন্ত্রণা তীব্র নয় বরং খুবই বিরক্তিকর। আমি সত্যিই খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে চলছি।’

উল্লেখ্য, চলতি মাসেই ইউএস ওপেনে মার্গারেট কোর্টের সর্বকালীন নজির ছোঁয়ার সুযোগ ছিল ২৩টি মেজরের মালকিনের সামনে। কিন্তু আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে ফ্লাশিং মেডোর সেমিফাইনালে বেলারুশের ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কার কাছে পরাজিত হতে হয় তাঁকে। প্রথম সেট জিতলেও পরের দু’টি সেট জিতে সেরেনাকে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছে যান আজারেঙ্কা।

ফরাসি ওপেনের আগে লকডাউন পরবর্তীতে অংশ নেওয়া তিনটি টুর্নামেন্টের মধ্যে টপ সিড ওপেনে তৃতীয় রাউন্ড, সিনসিনাটি ওপেনে প্রি-কোয়ার্টার এবং ইউএস ওপেনে সেমিফাইনাল অবধি দৌড় ছিল সেরেনার। চলতি ফরাসি ওপেন চোটের কারণে সম্পূর্ণই করতে পারলেন না মার্কিন কিংবদন্তি।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।