বারাসত: গত এগারো বছর আন্তর্জাতিক ভাষা দিবস উপলক্ষ্যে পেট্রাপোলে অনুষ্ঠান হয়৷ আর সেই অনুষ্ঠানের আয়োজক ভারত বাংলাদেশ মৈত্রী সমিতি ৷ যেহেতু একটাই অনুষ্ঠান হত সেহেতু ওই ‘নো ম্যানস ল্যাল্ডে’ বাংলাদেশের অতিথিরাও চলে আসতেন ৷ কিন্তু এবারে আর তা হচ্ছে না ৷ আগামী ২১ফেব্রুয়ারি আলাদা আলাদা করে ভাষা দিবস পালন করা হবে ভারত এবং বাংলাদেশ সীমান্তে ৷

এরফলে একটি মঞ্চ হবে বাংলাদেশ সীমান্তে এবং অন্যটি ভারতের সীমান্তে ৷ একটা হবে বেনাপোলে অন্যটি পেট্রাপোলে ৷ শুক্রবার ভারত বাংলাদেশ মৈত্রী সমিতির বৈঠকে এমনই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ আইন শৃঙ্খলাজনিক কারণেই ভাষা দিবসের অনুষ্ঠানের আয়োজন এমন ভাবে করা হচ্ছে বলে খবর৷

প্রতি বছরের মতো এবারেও এই অনুষ্ঠানের বিষয়ে বৈঠক হয় এবং সেই বৈঠকে হাজির ছিলেন বাংলাদেশের যশোর-১এর সাংসদ আফিলউদ্দিন সহ তাদের প্রতিনিধিরা ৷ অন্যদিকে হাজির ছিলেন এদেশের তরফে বনগাঁ পুরসভার চেয়ারম্যান শংকর আঢ্য এবং অন্যান্যরা৷ তাছাড়া ছিলেন দুদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জওয়ান এবং পুলিশ প্রশাসনের কর্তারা৷ তবে আলাদা আলাদা অনুষ্ঠান হলেও পেট্রাপোলের অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন প্রতিনিধি হাজির থাকার কথা বলে জানা গিয়েছে ৷

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা