মুম্বই: লক্ষ্মীবারে চরম পতন দেখা গেল দেশের শেয়ার বাজারে৷ বৃহস্পতিবার লগ্নিকারীরা যেন শেয়ার বেচার জন্য কমপিউটারের বোতাম টিপতে ব্যস্ত ছিল কারণ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ঘোষণা করেছে এই করোনা ভাইরাস এখন বিশ্বমহামারীর আকার ধারণ করেছে ৷ ইউরোপ থেকে কাউকে আমেরিকায় ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে ৷ এই শেয়ারবাজারের পতনের ফলে লগ্নিকারীদের সম্পদ ১০.৯ ট্রিলিয়ন কমে গিয়েছে৷ ভারতের দুই শেয়ার সূচক সেনসেক্স এবং নিফটির পতন এদিন ৯ শতাংশ ৷

দিনের শেষে এদিন বিএসই সূচক সেনসেক্স নেমেছে ২৯১৯ পয়েন্ট যার গত দুবছরে সর্বনিম্ন স্তর ৩২৭৭৮ থেকে নেমে গিয়ে দাড়িয়েছে ৩২৪৯৩.১০ পয়েন্টে৷ এইচডিএফসি ব্যাংক ( ৯ শতাংশ পতন), রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ (৭শতাংশ পতন),এইচডিএফসি(৭শতাংশ পতন) মূলত এদিন সেনসেক্সকে নামিয়ে এনেছে ৷ এছাড়া স্টেট ব্যাংক , অ্যাক্সিস ব্যাংক , আইটিসি এবং ওএনজিসি শেয়ার পড়েছে ১৩ শতাংশ করে৷

অন্যদিকে নিফটি ৫০ সূচকটি ২০১৮সালের ২৬ মার্চের পর এদিন প্রথম ১০,০০০পয়েন্টের স্তর থেক নেমে আসে৷ তবে দিনের শেষে এদিন নিফটি ৭.৮৯ পয়েন্ট বা ৮২৫ পয়েন্ট নেমে গত ৩২ মাসে সর্বনিম্ন স্তর ৯৬৩৩ এসে পৌঁছেছে ৷ এই সূচক এখন বেয়ার মার্কেটে প্রবেশ করেছে সর্বোচ্চ স্তর থেকে ২০ শতাংশ পতনের পর৷ নিফটির সব কটি ক্ষেত্রের সূচকই এখন ৫২ সপ্তাহে সর্বনিম্ন স্তরে রয়েছে ৷

বিশ্বব্যাপী শেয়ার বাজারে করূণ অবস্থা লক্ষ্য করা গিয়েছে ,ইউরোপের শেয়ারবাজার গত চার বছরে সর্বনিম্ন স্থানে পৌছে গিয়েছে৷ ৬০০ সূচক কমেছে ৪.৯ শতাংশ৷ এশিয়ার মধ্যে জাপানের নিকি ৪.৪ শতাংশ পড়ে তিন বছরে সর্বনিম্ন স্থানে৷ অস্ট্রেলিয়ার শেয়ার বাজারে ৭.৪ শতাংশ নেমেছে৷