মুম্বই: টানা পাচদিন ধরে নামার পর শেয়ার সূচক সেনসেক্স এবং নিফটি সামান্য উঠল। মঙ্গলবার শেয়ারবাজারে অস্থিরতা দেখা গিয়েছে । এদিন একসময় বিএসই সেনসেক্স ৬৬৭.৪৬ পয়েন্ট বাড়লেও সেই উচ্চতা ধরে রাখতে পারেনি ।ফলে দিনের শেষে সেনসেক্স ৭.০৯ পয়েন্ট বা ০.০১ শতাংশ উঠে অবস্থান করছে ৪৭,৭৫১.৪১ পয়েন্টে। একইরকম ভাবে এনএসই সূচক নিফটি ৩২.১০ পয়েন্ট বা ০.২২ শতাংশ বেড়ে অবস্থান করছে ১৪,৭০৭.৮০ পয়েন্টে।

ওএনজিসি হল সেনসেক্সে থাকা যেসব শেয়ারের দাম বেড়েছে তাদের মধ্যে শীর্ষে, এর বৃদ্ধি হয়েছে ৬ শতাংশ। তারপরে এই তালিকায় রয়েছে ইন্দাসিন্দ ব্যাংক, এল অ্যান্ড টি, আলট্রাটেক সিমেন্ট, টাইটান, এস বি আই এবং এনটিপিসি। অন্যদিকে যাদের দাম কমেছে তাদের মধ্যে রয়েছে কোটাক মাহিন্দ্র ব্যাংক, মারুতি, বাজাজ অটো, এইচডিএফসি ব্যাংক এবং এইচসিএল টেক।

দেশের শেয়ারবাজারে অস্থিরতা রীতিমতো দেখা গেলেও মেটাল এবং রিয়েলটি ক্ষেত্রের সূচক ভালোই উঠতে দেখা গিয়েছে।এশিয়ার শেয়ারবাজার এদিন মোটের উপর দুর্বল ছিল। সাংঘাই এবং সিওল শেয়ারবাজারে দিন পড়েছে। তবে হংকং শেয়ারবাজার কিছুটা উঠতে দেখা গিয়েছে। ইউরোপে স্টক এক্সচেঞ্জ গুলি দুপুর অবধি নিম্নমুখী ছিল।

যদিও এই সপ্তাহের শুরুতেই দিনটা একেবারেই ভাল যায়নি শেয়ারবাজারের পক্ষে। সোমবার বড় সড় ধস নামে শেয়ার সূচকে যার ফলে সেনসেক্স তিন সপ্তাহের সর্বনিম্ন পয়েন্টে নেমে এসেছিল। এই নিয়ে টানা পাঁচটি লেনদেনের দিনে শেয়ার সূচক নেমে আসতে দেখা গিয়েছিল। বিশ্বের শেয়ারবাজারের দুর্বল অবস্থা ও বন্ডের ইল্ড বৃদ্ধির পাশপাশি ফের করোনা ঘিরে লক ডাউনের আতঙ্ক দানা বাধায় শেয়ারবাজারকে টেনে নামাচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছিল । এমনই দশা হয়েছিল সোমবার যে সূচক গত দুমাসে দিনের মধ্যে এতটা পতন আর ঘটেনি- যারফলে এক সময় সেনসেক্স এদিন ১২৬২ পয়েন্ট এবং নিফটি ৩৪৫ পয়েন্ট  নেমেছিল। সেই তুলনায় মঙ্গলবার অবস্থা কিছু উন্নতি হয় যদিও দিনভর অস্থিরতা নজরে এসেছে ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।