নয়াদিল্লি: এক সিনিয়র এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান চালক অ্যালকোহল টেস্টে ফেল করেন৷ এরপরই তাঁকে শাস্তি হিসেবে ন্যুনতম তিন বছরের জন্য বিমান চালানোর কাজ থেকে বরখাস্ত করা হয়৷

জানা গিয়েছে একটি ইন্টারন্যাশনাল বিমান ওড়ানোর আগে তাঁর অ্যালকোহল টেস্ট হয়৷ ওই বিমানটিকে তাঁর দিল্লি থেকে উড়িয়ে সিডনি নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল৷ কিন্তু তার আগেই অ্যালকোহল টেস্ট দিতে গিয়ে অকৃতকার্য হন ওই পাইলট৷ এরপরই ক্যাপ্টেন অরভিন্দ কাথপালিয়ার শাস্তি ঘোষণা করা হয়৷ জানা গিয়েছে তাঁর রক্তে অতি মাত্রায় ‘অ্যালকোহল কনটেন্ট’ মিলেছে৷

ক্যাপ্টেন অরভিন্দ সিনিয়র পাইলট পদের পাশাপাশি এয়ার ইন্ডিয়ার অপারেশনের ডিরেক্টর পদেও রয়েছেন৷ এই ঘটনার পর তাঁর লাইসেন্স বাতিল করেছে এয়ার সেফটি বিভাগ৷

ডিরেক্টোরেট জেনারেল অফ সিভিল অ্যাভিয়েশনের (DGCA) মুখপাত্র জানান “তাঁর লাইসেন্সের সুবিধাগুলি নিয়ম নীতি না মানার কারণে ১১.১১.২০১৮ তারিখ থেকে তিন বছরের জন্য বাতিল করা হল৷”

বিমানের নিয়ম নীতি অনুযায়ী বিমানে ডিউটির শুরুর ১২ ঘণ্টা আগে বিমানের ক্রু কোনও অ্যালকোহলিক দ্রব্য সেবন করতে পারবেন না৷ এবং তাঁদের ক্ষেত্রে প্রতিবারই বিমান উড়ানোর আগে ও বিমান নামার পরে অ্যালকোহল টেস্ট দেওয়া বাধ্যতামূলক৷

তাঁর বিরুদ্ধে প্ররোচনা করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন পাইলট৷ এটি একটি অলাভজনক জাতীয় বাহক সংস্থার আভ্যন্তরীণ গোলযোগের ফল৷

প্রতীকী ছবি

তবে ওই বিমান চালকের ক্ষেত্রে এটি প্রথম ঘটনা নয়৷ এর আগেও প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-এর বিমান উড়িয়েছেন তিনি৷ এর আগে একবার শ্বাস-প্রশ্বাসের পরীক্ষায় ক্যাপ্টেন কাথপালিয়া অকৃতকার্য হন৷ ২০১৭ এর জানুয়ারিতে বিমান ওড়ানোর আগে তিনি অ্যালকোহল টেস্ট দেননি৷ এরপর তাঁকে তিন মাসের জন্য বসিয়ে দেওয়া হয় কাজ থেকে৷

তথ্য অনুযায়ী, নিয়ম ভাঙার অপরাধে ও এয়ার ইন্ডিয়ার চিকিৎসকদে ভয় দেখিয়ে তথ্য প্রমাণ বদলানোর অপরাধে আদালত দিল্লি পুলিশকে ক্যাপ্টেন কাথপালিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করতে আদেশ দিয়েছে৷

DGCA নিয়ম অনুযায়ী নিয়ম ভাঙার অপরাধে প্রথমে তিন মাসের জন্য বিমান চালকরে ওড়ার লাইসেন্স বাতিল করা হয়৷ সেই অপরাধ আবার করলে তিন বছরের জন্য লাইসেন্স বাতিল করা হয়৷ এর পরেও যদি সেই অপরাধ আবার করা হয় সেক্ষেত্রে সারা জীবনের জন্যই লাইসেন্স বাতিল ঘোষণা করে দেওয়া হয়৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV