জয়পুর: যা মদ বিক্রি করা হচ্ছে, তার থেকে আরও ১০ শতাংশ বাড়াতে হবে পরিমাণ৷ এমনই অদ্ভুত নির্দেশিকা জারি করেছে রাজস্থান সরকার৷ যেভাবেই হোক হোটেল ও বারগুলিকে এই মদ বিক্রির পরিমাণ বাড়াতে হবে বলে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে৷ গত বছরের তুলনায় মদ বিক্রির পরিমাণ চলতি বছরে আরও ১০ শতাংশ বাড়াতে বলে জানা গিয়েছে৷ সেই টার্গেট পূরণ না হলে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে সংশ্লিষ্ট হোটেল বা বার কর্তৃপক্ষকে৷

রাজস্থান জুড়ে প্রচুর বার ও লাউঞ্জ খুলে যাওয়ায় মদ বিক্রি কমে গিয়েছে হোটেল গুলির৷ হোটেল কর্তৃপক্ষের অভিযোগ তাদের মদ বিক্রির ব্যবসা ক্রমশ ঘাটতির দিকে৷ লাভের গুড় খেয়ে যাচ্ছে ওই বার কর্তৃপক্ষ৷ তবে এই যুক্তি মানতে রাজি নয় রাজস্থান সরকার৷ তাদের দাবি সরকারি কোষাগার ভরানোর জন্য মদের বিক্রি বাড়ানো প্রয়োজন৷

আরও পড়ুন : জনসাধারণের অসুবিধা করে মন্ত্রীদের কনভয় আগে ছাড়া যাবেনা, পুলিশকে নির্দেশ মমতার

ইতিমধ্যেই রাজ্য জুড়ে মদের দাম বাড়িয়েছে সরকার৷ বাড়ানো হয়েছে ভ্যাট, লাইসেন্স ফি৷ এবার নয়া চাপ তৈরি করে মদ বিক্রি বাড়ানোর ওপর জোর দেওয়ার কথা বলছে রাজস্থান সরকার৷ মিডিয়া রিপোর্ট বলছে মদ বিক্রির পরিমাণ বাড়াতে না পারলে চলতি বছরে রাজ্য জুড়ে প্রায় ৩০০ বার ও হোটেলকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে রাজ্য সরকারকে৷

রাজস্থানের হোটেল বার ওনার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক দিলীপ তিওয়ারি বলেন সরকার শুধু নিজের সমস্যার কথাই ভাবছে৷ হোটেলগুলির সমস্যার দিকে তাকাচ্ছেই না৷ দশ শতাংশ বিক্রি না বাড়লে হোটেলগুলিকে যে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে, তা ক্ষতির পরিমাণ বাড়াবে৷ ইতিমধ্যেই এই নির্দেশিকা চলে এসেছে, ফলে চিন্তা বেড়েছে হোটেল মালিকদের৷ তিনি আরও বলেন, যেভাবে প্রতিযোগিতা বেড়েছে, মদের বিক্রি বাড়ানো প্রায় অসম্ভব৷ তার ওপর মদের দাম বেশ বাড়ি দিয়েছে রাজ্য সরকার৷