ছবি- প্রতীকি

লখনউ: উপস্থিতির হারের জন্য সেলফি! সকাল ৮ টার আগে স্কুলে পৌঁছে ক্লাসের সামনে সেলফি তুলতে হবে শিক্ষকদের। শিক্ষাক্ষেত্রে স্বচ্ছতা আনতে এবার এই রকমই নয়া পদক্ষেপ নিতে উদ্যোগী উত্তরপ্রদেশ সরকার। তবে উত্তরপ্রদেশের সর্বত্র নয়, রাজ্যের বরবাঙ্কি জেলার সমস্ত সরকারি স্কুলের শিক্ষকদের এখন উপস্থিতি জানান দিতে ক্লাসের সামনে দাঁড়িয়ে তুলতে হবে সেলফি। এমনই নির্দেশ জারি করা হয়েছে জেলার শিক্ষা দফতরের পক্ষ থেকে।

জানা গিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের বরবাঙ্কি জেলার সমস্ত সরকারি স্কুলের শিক্ষকদের উপস্থিতির হারে নজর রাখতে এমন পদক্ষেপ নিতে চলেছে জেলা প্রশাসন। তারা যে স্কুলে এসেছেন সে বিষয়ে জানানোর জন্যই এমনটা করতে হবে শিক্ষকদের। জেলার শিক্ষা আধিকারিকের দেওয়া বিবরণ অনুযায়ী, যেসব শিক্ষকরা ওই নির্দিষ্ট করে দেওয়া সময়ের মধ্যে সেলফি তুলতে পারবেন না তাদের মাসহারা থেকে কেটে নেওয়া হবে একদিনের জন্য বরাদ্দ টাকা। জানা গিয়েছে, রোজ সকাল ৮ টার আগে এসে ক্লাসের সামনে সেলফি তুলতে হবে শিক্ষদের। ওই সেলফি রোজ আপলোড করতে হবে জেলার প্রাথমিক শিক্ষা অধিকারি (BSA)-এর ওয়েব পেজে।

উত্তরপ্রদেশের অন্যতম রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ভি পি সিং ওই রিপোর্টে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলেছেন, ওই সেলফিগুলি নিরীক্ষণ করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং শিক্ষামন্ত্রীকে পাঠানো হবে। আইএএনএসকে দেওয়া এক রিপোর্টের ভিত্তিতে জানা গিয়েছে, এই প্রক্রিয়া আগামী বছরের মে মাসে চালু করে দেওয়া হবে। আগামী বছর গ্রীষ্মের ছুটির আগেই এই পদ্ধতি কার্যকর করে দেওয়া হবে।

এই রিপোর্টে আরও জানা গিয়েছে, খুব শীঘ্রই সাতশোরও বেশি শিক্ষকের একদিনের বেতন কাটা হবে। তারপর কোন শিক্ষককে যদি ক্লাসের সময় ইন্টারনেট ব্যবহার করতে দেখা যায় তাহলেও তার বেতন কাটা হবে। শিক্ষাদপ্তরের একজন আধিকারিক বলেন শিক্ষকদের দুর্নীতি কমাতে এহেন সদ্ধান্ত নেওয়া হতে চলেছে। তিনি আরও জানান, যদি এই দাওয়াই কাজ দেয় তাহলে উত্তরপ্রদেশের বাকি জেলাগুলিতেও এই এক পদ্ধতি কাজে লাগানো হবে।