মুম্বই: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজে ভারতীয় দলে নেই মহেন্দ্র সিং ধোনি৷ শুক্রবার রাতে জাতীয় নির্বাচকরা দল ঘোষণা করার পর থেকে শুধু ভারতীয় ক্রিকেটমহলেই নয়, গোটা ক্রিকেটবিশ্বে আলোচনার প্রধান বিষয় এখন এটাই৷

আরও পড়ুন: ভারতীয় দল থেকে বাদ পড়লেন ধোনি

এখন প্রশ্ন হল, নির্বাচকরা টি-২০ থেকে ধোনিকে বাদ দিলেন, নাকি সাময়িক বিশ্রামে পাঠালেন? ধোনির নিজে থেকে সরে দাঁড়ানোর সম্ভাবনাও একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না, ঠিক যেমনভাবে তিনি টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন ও সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ক্যাপ্টেন্সি ছেড়ে দিয়েছিলেন কোহলিকে৷

প্রশ্নগুলির সদূত্তর না মিললেও বোর্ডের অন্দরমহলের খবর, প্রথম যুক্তিটাই সঠিক ধোনির টি-২০ দলে না থাকার কারণ হিসাবে৷ ধোনিকে টি-২০ ক্রিকেট থেকে ছেঁটে ফেলে সংক্ষিপ্ত ফর্ম্যাটে তাঁর কেরিয়ারে দাঁড়ি টেনে দিলেন নির্বাচকরা৷ টিম ম্যানেজমেন্ট মারফৎ ধোনিকে সেকথা নাকি জানিয়েও দিয়েছেন এমএসকে প্রসাদরা৷

আরও পড়ুন: বিতর্কে জল ঢালতে কেদার যাদবকে দলে ফেরালেন নির্বাচকরা

এটা বুঝতে বাকি নেই যে, ২০২০ সালের টি-২০ বিশ্বকাপে ধোনিকে ভারতীয় দলে পাওয়া যাবে না৷ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ততদিন তিনি খেলা চালিয়ে যাবেন কি না সন্দেহ৷ তাই তাঁর বিকল্প হিসাবে তুলে আনতে হলে এখন থেকেই নতুনদের সুযোগ দেওয়া দরকার৷ নির্বাচকরা আহেতুক ধোনিকে টেনে নিয়ে যেতে নারাজ৷

এমনটাও শোনা যাচ্ছে যে, টি-২০ থেকে বাদ দেওয়া হলেও তাঁর ওয়ান ডে কেরিয়ার ধোনির হাতেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে৷ এটা স্পষ্ট যে, আগামী বছর ওয়ান ডে বিশ্বকাপে ধোনিকে সামনে রেখেই ঘুটি সাজাচ্ছে ভারত৷ তাতে নির্বাচকদেরও আপত্তি নেই৷ ধোনি নিজেও চান বিশ্বকাপ খেলতে৷ তবে তার পরে অথবা আগে দু’টি বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক খেলা ছেড়ে দিতে চাইলে সেই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাবেন নির্বাচকরা৷