মহাভারতের গল্পে আমরা দেখতে পাই, দ্রৌপদী তাঁর বিবাহিত জীবনের সম্পর্কে কিছু কথা বলেন কৃষ্ণের স্ত্রী সত্যভামাকে। আর সেই কথাগুলি জানলে বুঝতে পারবেন বিবাহিত জীবনকে সুস্থ ও সুন্দর করে তুলতে এই বিষয়গুলি কতটা জরুরি। দ্রৌপদী বলেছিলেন,

১. কখনও স্বামীকে নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করবেন না। কালা যাদু করতে গেলে হিতে বিপরীত হতে পারে। স্বামীকে তার নিজের মত ছেড়ে দেওয়া উচিৎ। তাতেই সে ঠিক থাকে।

২. একজন বুদ্ধিমতী স্ত্রী’র উচিৎ স্বামীর আত্মীয়-স্বজন সম্পর্কে সবকিছু জেনে নেওয়া।

৩. একজন মহিলা যিনি মিথ্যা কথা বলেন, তার থেকে সবসময় দূরত্ব বজায় রাখা উচিৎ। এতে বিবাহিত জীবন নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

৪. একজন নারীর কখনও কাউকে অসম্মান করা উচিৎ নয়। সে ছোটই হোক বা বড়। সবসময় পরিবারের প্রতি ভালোবাসা বজায় রাখা উচিৎ।

৫. কখনও একজন মহিলার অলস জীবন কাটানো উচিৎ নয়। স্বামীর যত্ন নিলে প্রিয় স্ত্রী হয়ে ওঠা সম্ভব।

৬. কোনও মহিলার বাড়ির বারান্দায় বেশিক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকা উচিৎ নয়। এতে সমাজের চোখে সে ছোট হয়ে যায়।

৭. একজন মহিলার সবসময় রাগ নিয়ন্ত্রণ করা উচিৎ। অতিরিক্ত কথা বলাও উচিৎ নয়।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ