নয়াদিল্লি: সুইস ব্যাংক থেকে আর এক কিস্তি তথ্য হাতে এলো ভারতের। এর আগে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে সুইজারল্যান্ডে কেন্দ্রীয় কর কর্তৃপক্ষ প্রথমবার ভারতীয় ব্যক্তি এবং সংস্থার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত তথ্য এদেশের হাতে তুলে দিয়েছিল। সেই সময় মোট ৭৫টি দেশকে এই ধরনের তথ্য সরবরাহ করেছিল তারা।

এই বারে ৮৬টি দেশের সঙ্গে তথ্য বিনিময় করা হচ্ছে। এই দেশগুলির মধ্যে ২০টির থেকে শুধু তথ্য নেওয়া হলেও আন্তর্জাতিক শর্ত পূরণ না হওয়ায় তাদের কোন তথ্য দেওয়া হয়নি। ইতিমধ্যেই সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় কর কর্তৃপক্ষ এবং ভারতসহ অন্যান্য দেশের মধ্যে তথ্য বিনিময়ের স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা চালু হয়েছে।

এই স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থার মাধ্যমে ৩১ লক্ষ অ্যাকাউন্টের তথ্য দেওয়া গিয়েছে। সেখানে ভারতীয় ব্যক্তি বা সংস্থার সংখ্যা নেহাত কম নয়। নাম-ঠিকানা পরিচয়, আর্থিক লেনদেন তথা কালো টাকা সংক্রান্ত তথ্য হাতে এলে ওইসব ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা সাজাতের সুবিধা হবে বলে মনে করছে সরকারি মহল।

আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পড়ে ২০১৭ সালের সুইজারল্যান্ড প্রথম তাদের দেশের ব্যাংকে জমা থাকা বিদেশিদের অর্থ সংক্রান্ত তথ্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে জানাতে রাজি হয় এবং দিতে শুরু করে।এই দুই কিস্তিতে একগুচ্ছ তথ্য দেওয়ার পাশাপাশি মাঝে আর কিছু তথ্য দিয়েছিল সুইস ওই সংস্থাটি।

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I