নয়াদিল্লি : সোমবার অর্থাৎ ৮ই মার্চ থেকে বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় দফা (Second session of Parliament’s Budget) শুরু হতে চলেছে। করোনা বিধি মেনে সোমবার থেকে সংসদ (Parliament’s Budget to commence from Monday) শুরু হতে চলেছে। সংবাদসংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাতকারে লোকসভার স্পীকার (Lok Sabha Speaker) ওম বিড়লা (Om Birla) জানান, রাজ্য সভার অধিবেশন চলবে সকাল ৯টা থেকে বেলা দুটো পর্যন্ত, অন্যদিকে, লোকসভার অধিবেশন বসবে বেলা ৪টে থেকে ১০টা পর্যন্ত।

বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় দফা শেষ হবে আটই এপ্রিল। জানুয়ারির ২৯ তারিখ শুরু হয়েছিল বাজেট অধিবেশনের প্রথম দফা। শেষ হয় ফেব্রুয়ারি ২৯ তারিখ। পয়লা ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ বাজেট পেশ করেন। প্রথম দফায় সাংসদদের উপস্থিতি ছিল ৯৯.৯ শতাংশ। লোকসভা সচিবালয় সূত্রে খবর বাজেট অধিবেশন ২০২১-এ লোকসভার কাজের সময় মোট ৫০ ঘন্টার মধ্যে ৪৯ ঘন্টা ১৭ মিনিট। অধিবেশনে অংশ নিয়েছিলেন ৪৯ জন মহিলা সাংসদ।

এদিকে, করোনা ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্প খোলা হল সংসদ চত্বরেই। সমস্ত করোনা বিধি মেনে ক্যাম্প খোলা হয়েছে। লোকসভা বুলেটিনে বলা হয়েছে, সাংসদদের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই ক্যাম্প করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রশিক্ষিত স্বাস্থ্যকর্মীরা এখানে কাজ করবেন।

সাংসদদের শারীরিক পরিস্থিতি বিচার করা পরেই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। ৯ই মার্চ অর্থাৎ মঙ্গলবার থেকে চালু হবে পার্লামেন্ট হাউস মেডিক্যাল সেন্টারে তৈরি করা করোনা টিকাকরণ ক্যাম্প। শনি রবি ও সরকারি ছুটির দিন বাদ দিয়ে সব দিনেই এখানে কাজ চলবে।

৮ই মার্চ থেকে বাজেট অধিবেশনের দ্বিতীয় দফা চালু হতে চলছে। সেই দিকে তাকিয়েই এই সিদ্ধান্ত বলে খবর। সাংসদদের পরিবারের সদস্যরাও এই ক্যাম্প থেকে ভ্যাকসিন পাবেন। জানানো হয়েছে, যেসব সাংসদের বয়স ৬০ বছরের উর্দ্ধে, তারাই আপাতত ভ্যাকসিন পাবেন। সংসদ সূত্রে খবর, বর্তমানে ৩৬ শতাংশ লোকসভা সাংসদের বয়স ও ৬২ শতাংশ রাজ্যসভার সাংসদের বয়স ষাটের ওপরে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।