শ্রীহরিকোটা: প্রথমবার উড়ানের প্রচেষ্টা ব্যর্থ৷ তবে হাল ছাড়ছেন না ইসরোর বিজ্ঞানীরা৷ চন্দ্রায়ন ২ ফের উড়ানের চেষ্টা করবে, আর তা করা হবে চলতি মাসেই৷ এমনই বলছে সূত্র৷ সূত্রের খবর জুলাই মাসেই চন্দ্রাভিযানে যাত্রা করতে পারে চন্দ্রায়ন-২৷

ইসরোর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে গভীর রাতে শ্রীহরিকোটা থেকে চাঁদের উদ্দেশ্যে পাড়ি দেওয়ার কথা ছিল এই মহাকাশযানের। ৫৬ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে এই অভিযান বাতিল করা হয়। জানা গিয়েছে, শেষ মুহূর্তে প্রযুক্তিগত ত্রুটি পাওয়া যায় মহাকাশযানে। আর এরপরেই এই অভিযান স্থগিত করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।

সূত্র জানাচ্ছে, রকেট ও উপগ্রহ নিরাপদেই রয়েছে৷ ইতিমধ্যেই রকেট থেকে তীব্রদাহ্যশীল পদার্থ যেমন তরল হাইড্রোজেন ও তরল অক্সিজেন সরিয়ে ফেলা হয়েছে৷ ফের ত্রুটি সারিয়ে যাতে মহাকাশে পাড়ি দিতে পারে চন্দ্রায়ন ২, তারই তোড়জোড় শুরু হয়েছে নতুন করে৷

ঠিক কোথায় ত্রুটি ছিল?

বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ৫৬ মিনিট আগে তরল হাইড্রোজেন এবং তরল অক্সিজেন ভরার কাজ চলছিল রকেটে। আর তা করার সময় একটা ছিদ্র দেখা যায়। আর এরপরেই তড়িঘড়ি বাতিল করা হয় এই অভিযান। কীভাবে এই ছিদ্র এল তা নিয়ে তদন্ত করবেন গবেষকরা। আর তা করতে প্রায় ১০দিন লেগে যেতে পারে বলে জানা যাচ্ছে। কিন্তু কীভাবে এই রকেটে এই ছিদ্র এল তা ভাবাচ্ছে ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থার বিজ্ঞানীদের।

জানা গিয়েছিল চলতি বছরের ৬ই সেপ্টেম্বর চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ করবে এই মহাকাশযান৷ চন্দ্রায়ন ২-এর তিনটি মডিউল৷ ল্যাণ্ডার (বিক্রম), অরবিটার ও রোভার (প্রজ্ঞান)৷ মূলত জলের সন্ধানে এবার চন্দ্রাভিযান ছিল ভারতের৷ এই রোভারে ছিল মোট ১১টি অংশ৷ এর মধ্যে ভারতের ছটি, তিনটি ইউরোপের, ২টি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের৷

এই প্রসঙ্গে ডিআরডিও-র ডিরেক্টর অফ পাবলিক ইন্টারফেস রবি গুপ্তা জানান, চন্দ্রায়ন ২-র উড়ান বন্ধ করার সিদ্ধান্ত একেবারে সঠিক ছিল৷ নয়তো বড়সড় বিপদ হতে পারত৷ এই ধরণের অভিযানে কোনও ঝুঁকি নেওয়া উচিত নয়৷ ইসরোর সিদ্ধান্ত একেবারে যথাযথ ও সময়োপযোগী৷

ইসরো আগে জানিয়েছিল চন্দ্রায়ন ২ উতক্ষেপন করা হবে GSLV Mk II রকেট থেকে৷ এই স্পেসক্র্যাফ্টের ওজন ৩ হাজার ২৯০ কেজি৷ ১৪ দিন এই যান চাঁদে কাটাতে পারবে৷ চন্দ্রপৃষ্ঠে একাধিক পরীক্ষা চালাবে এই চন্দ্রযান৷ ৬ চাকার একটি রোভার চন্দ্রপৃষ্ঠে ঘুরে বেড়াবে৷ চন্দ্রপৃষ্ঠকে এটি পর্যবেক্ষন করবে ও ডেটা পাঠাবে পৃথিবীতে৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।