মুম্বই : কিশোর বিয়ানির ফিউচার গোষ্ঠীর খুচরা ব্যবসা কিনে নেওয়ার ব্যাপারে মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজকে সবুজ সংকেত দিল সিকিউরিটি এক্সচেঞ্জ বোর্ড অফ ইন্ডিয়া (সেবি)। এই লেনদেনের ব্যাপারে গত দেড় বছর ধরে আইনি লড়াইয়ের মুখে পড়তে হয় রিলায়েন্সকে। কারণ ২৪,৭৪১ কোটি টাকার এই ডিলের বিরুদ্ধে আইনি লড়াই শুরু করেছিল অ্যামাজন।

প্রসঙ্গত ২০১৯ সালে অগাস্ট মাসে ফিউচার গোষ্ঠীর খুচরো ব্যবসা কিনে নেওয়ার জন্য রিলায়েন্সের সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল। কিন্তু এই ডিল ঘিরে প্রশ্ন তুলে মামলা করেছিল অ্যামাজন। কিন্তু সেবি জানিয়ে দিল, ফিউচারের সঙ্গে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চুক্তি ঘিরে কোন সমস্যা নেই। এর পরের ধাপের বিষয়ে এই দুই সংস্থা এগোতে পারে বলে সবুজ সংকেত দিল।

সেবির এই নির্দেশের ফলে বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ(বিএসই) এবং ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জ (এনএসই) এর পক্ষ থেকে দুই সংস্থার কাছে চিঠি পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এদিকে আবার অ্যামাজনের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন,বিএসই এবং এনএসই এমন পদক্ষেপ হাইকোর্ট এবং এনসিএলটিতেও পড়বে। তবে তাদের আইনি লড়াই জারি থাকবে এবং এই চুক্তি অবৈধ বলে দাবি করে। আর সেই দাবি নিয়েই অ্যামাজন দিল্লি হাইকোর্ট এবং ন্যাশনাল কোম্পানি ল ট্রাইবুনাল (এনসিএলটি)-র দ্বারস্থ হয়েছিল।

ওই মামলায় গত অক্টোবর মাসে আশার আলো দেখেছিল অ্যামাজন।ফিউচার গ্রুপকে তাদের সংস্থা বিক্রির ক্ষেত্রে স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়। তখন ফিউচার গ্রুপ দাবি করে, রিলায়েন্সের সঙ্গে এই চুক্তিতে বাধা দিতে পারে না অ্যামাজন।

পাশাপাশি ওই স্থগিতাদেশ রিলায়েন্সের সঙ্গে চুক্তিতে বাধা হতে পারে না। তখন অ্যামাজন সেবির দ্বারস্থ হয়।এবার অ্যামাজনের সেই আরজি খারিজ করে দিল সেবি এবং জানিয়ে দিল সংস্থা দুটি পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য এগোতে পারে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।