স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ফের প্রশ্নচিহ্নের মুখে যাত্রী সুরক্ষা৷ বুধবার বারাকপুর লোকালের মহিলা কামরায় অবাধে লুটপাট চালালো দুষ্কৃতীরা৷ পাশাপাশি ওই কামরায় থাকা যাত্রীদের ব্যাপক মারধরও করা হয় বলে জানা গিয়েছে৷ এদিন বারাকপুরগামী একটি লোকাল ট্রেন সিগন্যাল না পেয়ে শিয়ালদহ-বিধাননগর মধ্যবর্তী স্থানে দাঁড়িয়ে ছিল৷ সেই সময় কয়েকজন দুষ্কৃতী ওই ট্রেনের মহিলা কামরায় চড়াও হয়৷ আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে অবাধে লুট-তরাজ চালায় তারা৷ যাত্রীদের গহনা, মোবাইল সহ অন্যান্য মূল্যবান সামগ্রী হাতিয়ে চম্পট দেয় তারা৷ এরপর যাত্রীদের একাংশ দমদমে নেমে গিয়ে শিয়ালদহ ফিরে এসে জিআরপিদের কাছে অভিযোগ জানায়৷ ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে শিয়ালদহ জিআরপি৷ ঘটনায় কে বা কারা জড়িত রয়েছে তা জানতে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করা হয়েছে৷অন্যদিকে এদিন পুলিশি নিরাপত্তার অভাবে ট্রেনে লুঠপাটের ঘটনায় দীর্ঘক্ষণ বিক্ষোভ দেখান যাত্রীরা৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।