কলকাতা: দিঘাকে পর্যটকদের কাছে আরও বেশি আকর্ষণীয় করতে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই সমুদ্র সৈকত সাজানো হয়েছে। এবার রাজ্য সরকারের উদ্যোগে দিঘার পর্যটনকে আন্তর্জাতিক মাত্রা দিতে সি-প্লেন নামানো হবে সেই সমুদ্রে।

পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তের যাত্রীদের নিয়ে সেই বিমান নামবে সমুদ্রের উপরে। সেখান থেকে নৌকায় বা লঞ্চে চেপে পৌঁছতে হবে সৈকতের দিকে। এমনই অভিনব পরিকল্পনা করেছে মমতা সরকার।

বিমানমন্ত্রী হরদীপ সিংহ পুরী সোমবার দিল্লি থেকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব রাজীব সিংহ ও পরিবহণ সচিব নারায়ণস্বরূপ নিগমের সঙ্গে ভিডিয়ো-সম্মেলন করেন। সেখানেই এই সি-প্লেন নিয়ে আলোচনা হয়। যদিও সরকারি সূত্রের খবর, বিষয়টি এখন একেবারে প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে।

পরিবহণ দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্যের তরফে সি-প্লেন চালানোর একটি প্রস্তাব কেন্দ্রীয় সরকারের অধীন পবনহংস সংস্থার কাছে পাঠানো হয়েছে। জানতে চাওয়া হয়েছে, দিঘা থেকে আদৌ এই বিমান চালানো সম্ভব কি না। পবনহংস মূলত হেলিকপ্টার চালায়। এক সময় রাজ্য সরকারও তাদের কপ্টার ভাড়া নিয়ে রেখেছিল। কয়েক বছর আগে আন্দামানে সি-প্লেনও চালিয়েছিল পবনহংস। সেই সি-প্লেন বিদেশ থেকে ভাড়া করে আনা হয়েছিল।

সোমবারের বৈঠকে কোচবিহার বিমানবন্দর থেকে আবার বিমান পরিষেবা চালু করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আপাতত ওই বিমানবন্দর বন্ধ। সেখান থেকে কোনও বিমানই ওঠানামা করছে না। মালদহ ও বালুরঘাটে রাজ্য সরকারের তৈরি নতুন বিমানবন্দর নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। সেই সঙ্গে কথা হয়েছে কলকাতা আর বাগডোগরা বিমানবন্দরের সম্প্রসারণ নিয়েও।