নয়াদিল্লি: এবার স্বাস্থ্যবিমা পরিষেবার ক্ষেত্রে রোগীদের সুবিধা পাওয়ার পরিধি বাড়ছে। সরকারি নথিভুক্ত যে কোনও হাসপাতালেই যাতে স্বাস্থ্য বিমা মারফত চিকিৎসার করাতে পারে তারই ব্যবস্থা করার কথা এক রায়ে জানিয়েছে দিল্লি হাইকোর্ট। সেক্ষেত্রে সরকারি নথিভুক্ত হাসপাতালে চিকিৎসা করালে ক্যাশলেস সুবিধাও দিতে হবে বিমা সংস্থাগুলিকে ।

এতদিন ধরে স্বাস্থ্যবিমা এবং থার্ড পার্টি অ্যাডমিনিস্ট্রেটর (টিপিএ) সংস্থাগুলি শুধুমাত্র তাদের নথিভুক্ত কয়েকটি হাসপাতালে চিকিৎসা করানো যেত কারণ সেক্ষেত্রেই স্বাস্থ্যবিমার দাবির টাকা পাওয়া যেত অথবা ক্যাশলেস সুবিধা পাওয়া যেত। এবার দিল্লি হাইকোর্টের রায়ের পর আর সেই নিয়ম প্রয়োজ্য নয়। এবার সরকারি নথিভুক্ত যে কোনও হাসপাতালে বৈধ স্বাস্থ্যবিমা নিয়ে চিকিৎসা করালে বিমা দাবির টাকা মেটাতে এবং ক্যাশলেস পরিষেবা দিতে বাধ্য থাকবে বিমা সংস্থা এবং টিপিএগুলি।

দিল্লি হাইকোর্ট তাদের রায়ে অনুসারে এবার আর জেনারেল ইনসিওরেন্স পাব্লিক সেক্টর অ্যাসোসিয়েশন (জিপসা), অর্থাৎ রাষ্ট্রায়ত্ত স্বাস্থ্যবিমা সংস্থাগুলির গোষ্ঠী হাসপাতালগুলিকে তাদের কাছে নথিভুক্তির জন্য চাপ দিতে পারবে না।
তাছাড়া স্বাস্থ্যবিমা ক্ষেত্রে সংস্থাগুলির ভূমিকা নিয়ে নিয়মিত খোঁজখবর না নেওয়ার জন্য বিমা নিয়ামক সংস্থাকেও কাঠগড়ায় তোলা হয়েছে। কেন্দ্র বা রাজ্য সরকারের কাছে নথিভুক্ত হাসপাতালে চিকিৎসার ক্ষেত্রে বিমা সংস্থাগুলিকে সংশ্লিষ্ট বিমাকারীর স্বাস্থ্যবিমার ক্লেম এবং ক্যাশলেস পরিষেবা দিতে হবে বলে নির্দিষ্ট করে জানিয়েছে দিল্লি হাইকোর্ট।