নয়াদিল্লি: দিল্লির উত্তর পূর্বে দফায় দফায় হওয়া সংঘর্ষের জের এসে পড়ল স্কুল গুলিতেও। জানা গিয়েছে আগামী ৭ মার্চ পর্যন্ত ওই এলাকার স্কুল গুলি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ওই পরিস্থিতির জেরে বাতিল হয়েছে একাধিক স্কুলের বার্ষিক পরীক্ষা। যার জেরে অসুবিধার মধ্যে একাধিক পড়ুয়া। এমনিতেই গত সপ্তাহে হয়ে যাওয়া সংঘর্ষের জেরে কার্যত স্তব্ধ দিল্লির উত্তর পূর্বাংশ। সংঘর্ষের আঁচ থেকে বাদ যায়নি স্কুলও। একাধিক স্কুলে ঢুকে ভাঙচুর করা হয়েছে। ভেঙে ফেলা হয়েছে স্কুলের জিনিসপত্র। বেশ কয়েকটি স্কুলের লাইব্রেরির বই নষ্ট করে দেওয়া হয়েছে।

এই ঘটনার জেরে উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে সিবিএসই বোর্ডের পরীক্ষা স্থগিত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। দশম শ্রেণির দুটি ও দ্বাদশ শ্রেণির তিনটি পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

ওই নির্দিষ্ট অঞ্চলে যে সকল পড়ুয়ার পরীক্ষা কেন্দ্র পড়েছে তাদের পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। আগামী ২৯ তারিখ পর্যন্ত সমস্ত পরীক্ষাসূচি স্থগিত রাখা হয়েছে। বোর্ডের তরফ থেকে দ্রুত নতুন পরীক্ষার সূচি জানানো হবে।

পাশপাশি ওই অঞ্চল থেকে যে সকল পড়ুয়ারা পরীক্ষা দিতে যেতে পারবে না সেই সকল পড়ুয়াদের স্কুলকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আলাদা করে একটি তালিকা প্রস্তুত করার।

ক্লাস ১০ এবং ১২ এর পড়ুয়াদের কথা মাথাতে রেখে প্রতিটি স্কুলের প্রধানকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যাতে তারা বিস্তারিত তথ্য স্থানীয় সিবিএসই অফিসে জমা করেন। এমন নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।