কলকাতাঃ  ৩০শে জুন পর্যন্ত সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। এমনটাই জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেই মতো যদি স্কুল ১ লা জুলাই থেকে খোলে তাহলে কীভাবে সমস্ত কিছু সামলানো সম্ভব তা নিয়ে তোড়জোড়ও শুরু হয়ে গিয়েছে।

কিন্তু আজ বুধবার বুধবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করলেন, জুলাই মাসেও স্কুল খুলবে না। তবে নির্ধারিত পরীক্ষা হবে। ১ লা জুলাই থেকে যদি স্কুল খোলে তাহলে সন্তানদের স্বাস্থ্য নিয়ে যথেষ্ট উদ্বেগে ছিলেন অভিভাবকরা। কিন্তু এদিনে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণাতে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরেছে অভিভাবকদের।

যদিও এর আগে নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন যে জুলাই মাসেও স্কুল খুলবে না। তবে নির্ধারিত পরীক্ষা হবে। একইসঙ্গে, বেসরকারি স্কুলগুলির প্রতি ফি না বৃদ্ধির আবেদনও করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান আরও জানিয়েছিলেন যে, ‘৩০ জুন পর্যন্ত স্কুল ছুটি, মনে হয় জুলাই হয়ে যাবে। জুলাইয়ে স্কুল খুলবে না, পরীক্ষা হবে। বেসরকারি স্কুলের কাছে আবেদন ফি বাড়াবেন না। মানুষের হাতে এখন টাকা নেই। শুধু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই নয়, জুলাই মাসেও স্কুল খোলা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছিলেন শিক্ষামন্ত্রী। আজ এই বিষয়ে পরিষ্কার ভাবে জানালেন মন্ত্রী।

অন্যদিকে, সেই মার্চ মাস থেকে বন্ধ স্কুল। ৩৩ কোটি পড়ুয়া অপেক্ষা করছে স্কুল খোলার জন্য। কবে থেকে স্কুল খুলবে, এক সাক্ষাৎকারে সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল। তিনি জানিয়েছেন, গত ১৬ মার্চ থেকে বন্ধ আছে স্কুল। অগস্ট মাসের পর খোলা হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।