ফের শিক্ষাঙ্গনে যৌনতা! হাঁটুর বয়েসি ছাত্রদের নগ্ন ছবি পাঠানোর অভিযোগ শিক্ষিকার বিরুদ্ধে।  আর এই অভিযোগে অভিযুক্ত ওই শিক্ষিকার দুবছরের কারাদন্ডের নির্দেশ দিল আদালত।

পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত এই মহিলার ক্লাসে ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়েসি পড়ুয়ারা আসলেই তাদের এই মহিলা নিজের ন্যুড ছবি পাঠাত।  শুধু তাই নয়, একটু বড় বয়েসি ছাত্রদের নানাভাবে প্রভোক করার চেষ্টা করতেই এই মহিলা।  যদিও এই বিষয়টি পুরোপুরি সবার নজর এড়িয়েই করতেন বলে অভিযোগ।  এমনকি, এহেন ঘটনা যাতে কেউ কাউকে না জানায় সেজন্যে নানাভাবে ছাত্রদের ব্ল্যাকমেল করত বলে অভিযোগ।

যদিও বিষয়টি বেশি দিন ধামাচাপা রইল না।  চাঞ্চল্যকর তথ্যটি ফাঁস হয়ে যায় সবার সামনে।  এরপরেই অভিযুক্ত এই মহিলার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়।  যদিও এহেন ঘটনা নতুন কিছু নয়, গত কয়েকমাসে একাধিক এহেন অভিযোগ জমা পড়েছে মার্কিন মুলুকের একাধিক স্কুলে।  আর তা রুখতে ইতিমধ্যে একাধিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।  কিন্তু তা সত্যেও এহেন ঘটনায় রীতিমত প্রশ্নের মুখে স্কুলের নিরাপত্তা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.