নয়াদিল্লি: বিজেপির নদিয়া উত্তরের জেলা সভাপতি মহাদেব সরকারের বিরুদ্ধে কমিশনকে পদক্ষেপ করার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট৷ কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্র সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করেন মহাদের সরকার৷ অভিযোগ জানান তৃণমূল প্রার্থী৷ তার জেরেই সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের এই নির্দেশ নির্বাচন কমিশনকে৷

গত ২৩ এপ্রিল কৃষ্ণনগরের এক সভায় বক্তব্য রাখছিলেন মহাদেব সরকার৷ সেখানেই তৃণমূলের উন্নয়নের চরম বিরোধীতা করেন তিনি৷ প্রশ্ন তলেন জেলার আইন শৃঙ্খলা নিয়ে৷ এরপরই তিনি কৃষ্ণনগরের তৃণমূল প্রার্থীকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করেন৷

আরও পড়ুন: নোডাল অফিসার অর্ণব রায় কোথায় ছিলেন, প্রশ্ন তুলবে সিপিএম

ওই সভাতে বিজেপির নদিয়া উত্তরের সভাপতি মহুয়া মৈত্রেকে ‘সুন্দরী রমণী’ বলেন৷ রাজ্যের শাসক দল সৌন্দর্য্যে ভর করেই ভোট বৈতরণী পারের চেষ্টা করছেন বলে দাবি করেন মহাদেব সরকার৷ পরে মহুয়াদেবীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘‘বিদেশে পড়ায় ভারতীয় সংস্কৃতি ভুলে গিয়েছেন আপনি৷ লজ্জাই নারীর ভূষণ৷ আপনি রঙিন জল পান করেন৷ আপনাকে ভারতীয় নারীরা মেনে নেবে না৷’’

আরও পড়ুন: বারাণসীতে মোদীর বিরুদ্ধে প্রার্থী দিল কংগ্রেস

মহাদেব সরকারের ওই মন্তব্যের পরই নিন্দার ঝড় ওঠে৷ প্রতিবাদে মুখর হয় তৃণমূল৷ বিজেপির জেলা উত্তরের সাংগঠনিক সভাপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন মহুয়া মৈত্র৷ সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই এদিন নির্বাচন কমিশনকে মহাদেব সরকারের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেওয়া হয়৷

এর আগে তৃণমূলের বিরুদ্ধে মিথ্যা শব্দ চয়নের জন্য বাবুল সুপ্রিয়র গাওয়া গানে নিষেধাজ্ঞা জারি করে কমিশন৷ আটকে দেওয়া হয়েছে ‘বাঘিনী’র ট্রেলর৷