নয়াদিল্লি: বিজেপি নেতা অর্জুন সিংয়ের আগাম জামিনের আবেদন গ্রহণ করল সুপ্রিম কোর্ট৷ রাজ্য সরকার তাঁকে ফাঁসানোর চক্রান্ত করছে। মিথ্যা মামলায় তাঁকে গ্রেফতার করা হতে পারে। এ অভিযোগ তুলেই সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হন বারাকপুর লোকসভার পদ্ম প্রার্থী৷

রাজ্যের সব কোর্টে চলছে কর্মবিরতি৷ এই পরিস্থিতিতে আগাম জামিনের জন্য বাংলার কোনও আদালতের দ্বারস্থ হওয়া সম্ভব নয়৷ তাই বাধ্য হয়েই রাজ্যের ষড়যন্ত্র রুখতে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানানো হচ্ছে বলে আদালতে জানিয়েছেন অর্জন সিংয়েয় আইনজীবী৷

ভোটের মুখেই প্রার্থী হওয়াকে কেন্দ্র করে তৃণমূল নেত্রীর সঙ্গে ঝামেলা হয় ভাটপাড়ার বিধায়কের৷ পরে মমতা দীনেশ ত্রিবেদীকে বারাকপুরের প্রার্থী করলে দল ছাড়েন অর্জুন সিং৷ জোড়ফুল ছেড়ে পদ্ম ফুলে নাম লেখান৷ বিজেপির হয়ে বারাকপুর থেকে প্রার্থীও হন৷

আরও পড়ুন: বিজেপিই সরকার গড়বে, তবে বিজেডি-র সমর্থনে ‘না’ নয়: জয় পান্ডা

তৃণমূলের খাস তালুকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন বিজেপির অর্জুন৷ প্রচার থেকে ভোট, এমনকি গত রবিবার ভাটপাড়া বিধানসভার উপনির্বাচনের সময়ও তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে৷ লোকসভা ভোটের দিন বিজেপি প্রার্থীর ঠোট কেটে যায়৷ ভুয়ো ভোটার ধরতে বিভিন্ন এলাকায় ছুটে বের হন অর্জন সিং৷

অর্জুনের বিরুদ্ধে গোলমাল পাকানোর অভিযোগ তোলে তৃণমূল। অশান্তি প্রসঙ্গে অর্জুনের দাবি, রাজ্যের শাসক দলের লোকেরাই বোমা মারছে। যা অস্বীকার করেন উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক৷ উলটে তিনি জানান, অর্জুন সিংয়ের দলবলই বোমাবাজি করছে। মদন মিত্রকে হারাতেই এই গুণ্ডাগিরি বিজেপির৷