পর পর বেশ কয়েকবার সুদের হার কমিয়েছে স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া। যার ফলে অনেক গ্রাহকেরাই ব্যাংকে মোটা টাকা রেখেও পর্যাপ্ত পরিমাণে সুদ পাচ্ছেন না। এবার এই সমস্যার একটি সঠিক সমাধান দিল বিশেষজ্ঞরা।

আপনি কি এসবিআই-এর গ্রাহক? যদি হন তাতে কোনও অসুবিধা নেই। বরং যে টাকা আপনি এখন সুদ হিসেবে আপনার পকেটে পুরছেন, অন্য এক জায়গায় বিনিয়োগ করলে পাবেন আরও বেশি টাকা। এই মুহূর্তে এসবিআই-তে ফিক্সড ডিপোজিটের ক্ষেত্রে সুদের হার রয়েছে ৪.৫ শতাংশ থেকে ৬.২৫ শতাংশ। আর পোস্ট অফিসে সেই সুদের হার ৬.৯০ শতাংশ থেকে ৭.৭০ শতাংশ। তাই কোন ক্ষেত্রে যে গ্রাহকেরা বেশি সুদ পাবেন তা বলার অপেক্ষা থাকে না।

পোস্ট অফিসের মাধ্যমে যে আরও বেশি সুদ পাওয়া সম্ভব একথা মানছেন খোদ বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞরাও। এসবিআই-এর ইন্টারনেট সাইট থেকে দেখা যাচ্ছে, ৭ দিন থেকে ৪৫ দিনের জন্য এসবিআইয়ের সুদের হার ৪.৫ শতাংশ। ৪৫ থেকে ১৭৯ দিনের মধ্যে এই সুদের হার থাকছে ৫.৫০ শতাংশ। ১৮০ দিনের পর থেকে এক বছরের জন্য এই সুদের হার ৫.৮০ শতাংশ। কিন্তু এক বছর থেকে ১০ বছরের সুদের মেলে ৬.২৫ শতাংশ।

আরও পড়ুন – মধ্যপ্রদেশে যতদিন কংগ্রেস, ততদিন সিএএ নয়: কমলনাথ

কিন্তু পোস্ট অফিসে এই সুদের হারের মাত্রা আলাদা। ১ বছরে সুদের হার ৬.৯০ শতাংশ। ২ বছরের ক্ষেত্রেও সুদের হার একই। ৩ বছরের ফিক্সড ডিপোজিটের ক্ষেত্রেও ব্যাপারটা এক। কিন্তু ৫ বছরের সুদের হারের ক্ষেত্রে তা ৬.৯০ শতাংশ থেকে বেড়ে হয় ৭.৭০ শতাংশ।

তাই যারা ফিক্সড ডিপোজিটে সুদের হার বেশি চান, তারা কিন্তু পোস্ট অফিসে টাকা রাখতেই পারেন। আর তাহলে দেরি করছেন কেন?

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও