স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: তিন তালাক বন্ধ করার জন্য বেশ কয়েকবছর ধরে আন্দোলন করে আসছেন হাওড়ার ইসরত জাহান৷ সম্প্রতি লোকসভায় তিন তালাক বিরোধী বিল পাশ করেছে কেন্দ্র সরকার৷ কিন্তু সোমবার রাজ্যসভায় বিরোধীদের বিরোধিতায় আটকে গিয়েছে এই বিল৷ এরপরই ইসরত নিজের ক্ষোভ উগরে দিলেন৷

কলকাতা২৪x৭-কে ইসরত বলেন, ‘‘জানি না কেন এই বিলের বিরোধিতা হচ্ছে৷ অনেকে মুসলিম ল-এর দোহাই দিচ্ছেন৷ বিশ্বের ২০টা মুসিলম রাষ্ট্রে তিন তালাক বন্ধ হয়েছে৷ অথচ ভারতে এটা বন্ধ করতে বাধা দেওয়া হচ্ছে৷ তাহলে মুসলিম মেয়েরা কোথায় যাবে? বিয়ে করে তালাক দিয়ে মুসলিম মেয়েদের দোরে দোরে ঘোরার জন্য ছেড়ে দেওয়া হবে নাকি?’’

সোমবারসকালে অধিবেশন শুরু হতেই বিরোধীদের হইহট্টগোলে অধিবেশন মুলতবি হয়ে যায়। পরে দুপুর দু’টোয় ফের শুরু হয় অধিবেশণ৷ কিন্তু প্রস্তাবিত তিন তালাক সংশোধনী বিল আলোচনার দাবিতে একযোগে বিরোধিতা শুরু করে বিরোধীরা৷ ফলে ১৫ মিনিটের জন্য মুলতবি হয়ে যায় অধিবেশন৷ পরে আড়াইটার সময় এদিনের মতো মুলতবি করে দেওয়া হয় অধিবেশন৷

বিজেপি প্রস্তাবিত তিন তালাক সংশোধনী বিলে ৩ বছরের শাস্তির বিধান রয়েছে৷ যার বিরোধিতায় সরব কংগ্রেস সহ অন্যান্য বিরোধী দলগুলি। সামাজিক বিষয়কে ফৌজদারি হিসাবে চিহ্নিত করায় আপত্তি জানায় বিরোধীরা। এই বিলটিতে স্ত্রীর ভূমিকার নির্দিষ্ট উল্লেখ নেই বলেও অভিযোগ৷

বিরোধীরা যাই বলুন ইসরাত কিন্তু ৩ বছরের শাস্তির পক্ষেই দাঁড়াচ্ছেন৷ তাঁর সাফ কথা, অনেকদিন সুপ্রিম কোর্ট তিন তালাক বন্ধের কথা বলেছে কিন্তু তারপরেও সেটাকে তোয়াক্কা না করে তিন তালাক দেওয়া হচ্ছে৷ আইন করে শাস্তিবিধান না আনলে তিন তালাক বন্ধ হবে না৷ পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, ‘‘হিন্দু ধর্মেও আগে সতী প্রথা, বাল্যবিবাহের মতো বিষয় ছিল৷ সেগুলো বন্ধ করা হয়েছে আইন করে৷ তিন তালাকও বন্ধ হওয়া উচিৎ৷’’