মুম্বই: সুনীল গাভাসকর, বিজয় মার্চেন্ট, অজিত ওয়াদেরকর, রোহিত শর্মাদের মতো তারকাদের সঙ্গে একাসনে বসে পড়লেন তরুণ সরফরাজ খান৷ উত্তর প্রদেশের বিরুদ্ধে রঞ্জি ট্রফির হোম ম্যাচে অনবদ্য ত্রিশতরান করেন ২২ বছর বয়সি ডান হাতি মুম্বইকর৷ সেই সঙ্গে তিনি ঢুকে পড়েন মুম্বইয়ের বর্ণোজ্জ্বল ক্রিকেট ইতিহাসে৷

আরও পড়ুন: বিপক্ষকে ফটোসেশনে ডেকে ‘স্পিরিট অফ ক্রিকেট’র দৃষ্টান্ত গড়ল ভারত

একদা মুম্বই ছেড়ে উত্তরপ্রদেশে পাড়ি দিয়েছিলেন আইপিএলের চমক সরফরাজ৷ চলতি মরশুমেই উত্তরপ্রদেশ ছেড়ে পুনরায় মুম্বইয়ে ফিরেছেন তিনি৷ ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে সেই ইউপি’র বিরুদ্ধে মাঠে নেমেই মুম্বইয়ের হয়ে ৩০১ রান করে অপরাজিত থাকেন সরফরাজ৷

আরও পড়ুন: বোর্ডের নির্দেশে বাংলার হয়ে রঞ্জি খেলা হচ্ছে না ঋদ্ধির

মূলত সরফরাজের ট্রিপল সেঞ্চুরির সুবাদেই মুম্বই ম্যাচ থেকে মূল্যবান ৩ পয়েন্ট পকেটে পোরে৷ প্রথমে ব্যাট করে উত্তরপ্রদেশ ৮ উইকেটের বিনিময়ে ৬২৫ রান তুলে প্রথম ইনিংস ডিক্লেয়ার করে৷ জবাবে ব্যাট করতে নেমে মুম্বই ৭ উইকেটে ৬৮৮ রান তুলে তাদের প্রথম ইনিংসের সমাপ্তি ঘোষণা করলে ম্যাচ ড্র হয়৷ প্রথম ইনিংসে লিড নেওয়ার সুবাদে ৩ পয়েন্ট ঘরো তোলে মুম্বই৷ ম্যাচে নিশ্চিত সেঞ্চুরি হাতছাড়া করেন মুম্বইয়ের দুই ব্যাটসম্যান৷ সিদ্ধেশ ল্যাড ৯৮ ও আদিত্য তারে ৯৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন৷

আরও পড়ুন: বিগ ব্যাশে দুর্ঘটনা, ফিল্ডারের সঙ্গে সংঘর্ষে হাসপাতালে ব্যাটসম্যান

সরফরাজ মুম্বইয়ের সপ্তম ক্রিকেটার হিসেবে রঞ্জি ট্রফিতে ত্রিশতরান করেন৷ তাঁর আগে রঞ্জিতে তিনশো রানের ব্যক্তিগত ইনিংস খেলেছেন সুনীল গাভাসকর, বিজয় মার্চেন্ট, অজিত ওয়াদেকর, সঞ্জয় মঞ্জরেকর, ওয়াসিম জাফর ও রোহিত শর্মা৷ জাফর রঞ্জিতে ২ বার ত্রিশতরান করেছেন মুম্বইয়ের হয়ে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।