মুম্বই: চলতি রঞ্জি ট্রফিতে স্বপ্নের ফর্মে রয়েছেন সরফরাজ খান৷ সেই ফর্ম বজায় রাখলেন মধ্যপ্রদেশের বিরুদ্ধে হোম ম্যাচেও৷ ঘরের মাঠে এমপি’র বিরুদ্ধে দুরন্ত শতরান করলেন সরফরাজ৷ যদিও এখনও দায়িত্ব ঘাড় থেকে ঝেড়ে ফেলেননি মুম্বইয়ের ডান হাতি মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান৷ বরং ধীরে ধীরে দ্বিশতরানের দিকে এগিয়ে চলেছেন তিনি৷

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ ফাইনালে হারের পর খাওয়া ছেড়েছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটারের মা

ঘরের মাঠে উত্তরপ্রদেশের বিরুদ্ধে কেরিয়ারের প্রথম ট্রিপল সেঞ্চুরি করেছিলেন সরফরাজ৷ন হিমাচলের বিরুদ্ধে পরের ম্যাচে অনবদ্য ডাবল সেঞ্চুরি করেন তিনি৷ সৌরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে গত ম্যাচে হাফ-সেঞ্চুরি করার পর এবার আরও একবার তিন অঙ্কের ইনিংস খেলেন সরফরাজ৷

আরও পড়ুন: ১৫ ফেব্রুয়ারি নির্ধারিত হবে ইশান্তের ভাগ্য

প্রথম দিনের শেষে সরফরাজ অপরাজিত রয়েছেন ব্যক্তিগত ১৬৯ রানে৷ ২০৪ বলের ইনিংসে তিনি ২২টি চার ও ৩টি ছক্কা মেরেছেন৷ সেঞ্চুরি করেছেন অভিষেককারী আকর্ষিত গোমেল৷ তিনি আউট হয়েছেন ১২২ রান করে৷ এমপি’র বিরুদ্ধে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে প্রথম দিনের শেষে মুম্বই তুলছে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ৩৫২ রান৷

আরও পড়ুন: সাড়ে ১০ কোটির ক্রিকেটারকে পাচ্ছে না প্রীতির দল

চলতি মরশুমে এই নিয়ে রঞ্জির ৬টি ম্যাচে মাঠে নামেন সরফরাজ৷ কর্ণাটকের বিরুদ্ধে দুই ইনিংসে যথাক্রমে ৮ ও অপরাজিত ৭১ রান করেন তিনি৷ তামিলনাড়ুর বিরুদ্ধে পরের ম্যাচে করেন ৩৬ রান৷ উত্তরপ্রদেশের বিরুদ্ধে ৩০১ রান করে নট-আউট থাকেন৷ হিমাচলের বিরুদ্ধে অপরাজিত থাকেন ২২৬ রান করে৷ সৌরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে দু’ইনিংসে করেন ৭৮ ও ২৫৷ এবার মধ্যপ্রদেশের বিরুদ্ধে ডাবল সেঞ্চুরির অপেক্ষায় রয়েছেন সরফরাজ৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।