স্টাফ রিপোর্টার, দার্জিলিং: বিধানসভা উপনির্বাচনে দার্জিলিং কেন্দ্রে দলের মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন পাহাড় তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা শাখার সভানেত্রী সারদা সুব্বা রাই৷ দলবিরোধী কাজের জন্য তাঁকে ছ’বছরের জন্য দল থেকে বহিষ্কার করল তৃণমূল কংগ্রেস৷

আগামী ১৯ মে দার্জিলিং বিধানসভার উপনির্বাচন৷ এই কেন্দ্র তৃণমূল কংগ্রেস কোনও প্রার্থী দেয়নি৷ তারা তাদের টিমের লোক দার্জিলিং-এর হেভিওয়েট নেতা বিনয় তামাংকে সমর্থন করেছে৷কিন্তু গত সোমবার তৃণমূলের পাহাড়ের সভানেত্রী সুব্বা রাই বিনয়ের বিরুদ্ধে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন৷ ওই কেন্দ্র থেকে নির্দল প্রার্থী হিসেবে লড়াই করছেন তিনি৷

মনোনয়নপত্র পেশের পর সারদা বলেন, পাহাড়ে শিক্ষকনিয়োগ নিয়োগ নিয়ে অনিয়ম চলছে৷ ভলেন্টিয়ার শিক্ষকরা ভুয়ো কাগজ তৈরি করে শিক্ষক হিসেবে চাকরিতে যোগ দিচ্ছেন৷বিনয় তামাং-এর গোষ্ঠীর লোকজন বাড়তি সুবিধা নিচ্ছে৷এভাবে চলতে পারেনা৷

১০৫ দিন পাহাড় বনধের ভূমিকায় যাঁর অন্যতম ভূমিকা ছিল তামাংকে মানুষ ভোট দেবে না৷সারদা জানিয়েছেন, তিনি এখনও দলের অনুগামী৷দল ছাড়ার কোনও ইচ্ছাও তাঁর নেই৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিষয়টি বুঝবেন৷

কিন্তু সারদার এই পদক্ষেপকে ভালভাবে নেয়নি বিনয় তামাং-এর শিবির৷তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে এব্যাপারে তাঁরা অভিযোগ করেন বলে জানা গিয়েছিল৷শুক্রবারদার্জিলিং জেলার পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস বলেন, দল বিরোধী কাজের জন্য সারদা রাই সুব্বাকে ছয় বছরের জন্য দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তাঁর সঙ্গে দলের কোনও সম্পর্ক নেই। পাহাড়ে দলে কোনও ভাঙনের সম্ভাবনা নেই। আমাদের দল সর্বমম্মত ভাবে বিনয় তামাংকে সমর্থন করছে।

এরপরই হিল তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী সারদা রাই সুব্বা বলেন, ২০১৭ সালের বিক্ষোভ আন্দোলনের সময় বিনয় তামাং, অনীত থাপা, বিমল গুরুং একসঙ্গে মোর্চায় ছিলেন। সেই সময় পাহাড়ের তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকদের বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। অনেককেই বাড়িঘর ছাড়তে হয়। কী অত্যাচার হয়েছিল তৃণমূল কর্মীদের উপর৷
তৃণমূল সেসব কথা ভুলে গিয়েছে৷ আমাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে শুনেছি। আমাদের দলের পর্যবেক্ষক অরূপ বিশ্বাস ওই নির্দেশ পাঠিয়েছেন। একদিকে আমার পক্ষে ভালই হয়েছে। এখন আমার পক্ষে কাজ করা সুবিধা হবে।